SHARE

মহাসড়কে বাইকের সঙ্গে বাস বা অন্যান্য যানবাহনের সংঘর্ষে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হন বাইক আরোহীরা। বুয়েটের তথ্য অনুযায়ী, দেশে ৫০ শতাংশ দুর্ঘটনা ঘটছে বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে আর ১৫ শতাংশ দুর্ঘটনা ঘটছে বেপরোয়া মোটরসাইকেল আরোহীদের জন্য। মোটরসাইকেল আরোহীদের জন্য হেলমেড পরা গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। প্রায় সব দেশেই মোরটসাইকেল আরোহীদের হেলমেট পরা বাধ্যতামূলক। এ বিষয়ে প্রশাসনের কড়াকড়ি থাকলেও অনেকে হেলমেট না পরেই মোটরসাইকেল চালান।

স্মার্টফোন, স্মার্টওয়াচের সঙ্গে আমাদের পরিচয় অনেক আগের। এবার পাকিস্তান তৈরি করেছে স্মার্ট হেলমেট। এই হেলমেটের নাম দেওয়া হয়েছে ‘হেলি’।

নতুন এই হেলমেট শুধু প্রাথমিকভাবে আরোহীকে রক্ষাই করবে না, দুর্ঘটনায় পড়লে নিজে থেকেই অ্যাম্বুলেন্স ডেকে আনতে পারে এটি। এই হেলমেটটি এখন ভারতের বাজারেও পাওয়া যাচ্ছে। এর দাম তিন হাজার টাকা।

এই হেলমেটে স্পিকার, মাইক্রোফোন, ব্লুটুথ রিসিভার, জিপিএস ট্র্যাকার ও একটি হার্ট রেট মনিটার রয়েছে। তাই ফোন এলে আলাদা করে কানে যেমন মোবাইল ধরার প্রয়োজন নেই, তেমনই রাস্তা হারিয়ে ফেলার সমস্যাও নেই। এখানেই শেষ নয়, হেলমেটের মাথায় লাগানো রয়েছে একটি ক্যামেরা ও দুটি ইন্ডিকেটর। এ হেলমেট মাথায় চাপালে রাস্তার দিক পরিবর্তনের সময় আলাদা করে ইন্ডিকেটর অন করারও দরকার হবে না। পাশাপাশি দুর্ঘটনায় পড়লে হেলির এসওএস মুডের মাধ্যমে সরাসরি ফোন চলে যাবে পরিবার ও অ্যাম্বুলেন্সে। এই হেলমেট চালাতে ইন্টারনেটেরও প্রয়োজন হবে না।

এর আগে ২০১৩ সালে এমন এক ধরনের স্মার্ট হেলমেট বাজারে আনা হয়েছিল। তার দাম ছিল এক হাজার ডলার।

26 Views