সারাদেশ

হরিরামপুরে অস্বচ্ছল পরিবারে বাড়িতে বাড়িতে খাদ্যদ্রব্য বিতরণ করছেন এক তরুন

শেয়ার করুন

জ.ই. আকাশ : মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে করোনায় রোজগার বন্ধ এমন অস্বচ্ছল পরিবারের বাড়িতে গিয়ে খাদ্যদ্রব্য বিতরণ করছেন এক তরুণ সমাজসেবক।

সমাজসেবকের নাম মোঃ কামরুল ইসলাম (বিপ্লব) তিনি ঝিটকা বাজারের প্রাচীন মিষ্টি ব্যবসায়ী মোঃ শফিউদ্দিন মোল্লার ছোট ছেলে ও ঝিটকা বাজার ব্যবসায়ী সমিতির প্রচার সম্পাদক।

সে গতকাল (৩০মার্চ) সোমবার থেকে এখনো পর্যন্ত বাল্লা, গালা, ঝিটকা বাজার, সোনাকান্দা, শোনপুর, গোয়ালবাগ, হোগলাকান্দী,কৌড়ি, কালই, গোপালপুর সহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় শতাধিক মানুষের মাঝে করোনা(কোভিড-১৯) এর প্রভাবে যাদের রোজগার বন্ধ। তেমন অস্বচ্ছল ব্যক্তিদের বাসায় গিয়ে তাদের মাঝে ৪কেজি চাউল, আধা কেজি ডাল, আধা কেজি ভোজ্য তেল ও একটি করে সাবান তুলে দিচ্ছেন। এছাড়া আরো শতাধিক বা তদুর্ধ পরিবারের মাঝে এই ত্রাণ পৌঁছে দিবেন বলে জানাগেছে।

ত্রাণ বিতরণের বিষয়ে মোঃ কামরুল ইসলাম(বিপ্লব) জানান, এই করোনা ভাইরাস থেকে বাচার জন্য সরকার থেকে দেশবাসীকে ঘরে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যার ফলে প্রায় সারাদেশের মানুষের রোজগার বন্ধ হয়েছে, সরকার থেকে প্রত্যেক এনজিও কে কিস্তি তুলতে নিষেধ করা হয়েছে।

এতে সাধারণ মানুষের কিছুটা স্বস্তি হলেও রোজগার বন্ধ হওয়ায় তাদের জীবিকা নির্বাহে কষ্ট হচ্ছে। এছাড়া সরকার থেকে স্বচ্ছল ব্যক্তিদের অনুরোধ করা হয়েছে তারা যেনো তাদের সাধ্য অনুযায়ী অস্বচ্ছল ব্যক্তিদের পাশে দাড়ায়। এজন্যই আমি প্রথমে আমার নিজ অর্থায়নে ৫০টি পরিবারের জন্য চাউল, ডাল, তেল ও সাবান কিনে বিতরণ শুরু করি।

এরপর বিষয়টি আমার কিছু বন্ধুবান্ধব ও বড়ভাইদের শেয়ার করি। তখন তারা আমার কাজটিকে সাধুবাদ জানিয়ে আমার সাথে মিলেমিশে ত্রাণ বিতরণের সিদ্ধান্ত নেয়। আমাকে তারা আর্থিক সাহায্য করেন যা এখনো অব্যাহত রয়েছে। তাই ইতোমধ্যেই আমরা শতাধিক মানুষের মাঝে আমাদের এই ত্রাণ পৌঁছে দিয়েছি এবং আরো শতাধিক মানুষের মাঝে বিতরণের জন্য প্রস্তুত করেছি। এছাড়া আর্থিক সাহায্য যখন অব্যাহত রয়েছে সেক্ষেত্রে এই ত্রাণের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলেও জানান তিনি।