আজকের সেরা সংবাদ

স্বর্ণ নীতিমালার খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

শেয়ার করুন

স্বর্ণ চোরাচালান রোধ ও স্বর্ণ খাতে সুষ্ঠু পরিবেশ এবং স্বর্ণ আমদানিতে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে ‘স্বর্ণ নীতিমালা ২০১৮’ এর খসড়ার অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

বুধবার রাজধানীর তেজগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, দেশের চাহিদা মিটিয়ে ও বিদেশে স্বর্ণালঙ্কার রপ্তানি করার লক্ষ্যে স্বর্ণ আমদানির প্রক্রিয়া সহজীকরণ এবং স্বর্ণ আমাদানি ও পরবর্তী বাণিজ্যিক প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বিধানের লক্ষ্যে নীতিমালা করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, স্বর্ণালঙ্কার রপ্তানিতে উৎসাহ এবং নীতিগত সহযোগিতা প্রদানের মাধ্যমে রপ্তানি বৃদ্ধিকরণ করাই এ নীতিমালার লক্ষ্য।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এ নীতিমালার ফলে স্বর্ণ খাতে ব্যবসাবান্ধব পরিবেশ বজায় রাখার লক্ষ্যে কার্যকর নিয়ন্ত্রণ সমন্বয় ও নিরীক্ষাগত যাবতীয় ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত হবে। ভোক্তা বা ক্রেতা স্বর্ণ ব্যবসায়ীসহ এ খাত সংশ্লিষ্ট্ অংশীজনের স্বার্থ সংরক্ষণ ও সকল অংশীজনের অংশীদারিত্ব ও কার্যকর সমন্বয় নিশ্চিকরণের মাধ্যমে স্বর্ণখাতের সুষ্ঠু ও টেকসই বিকাশের জন্যে একটি সহায়ক পরিবেশ সৃষ্টি হবে ।

শফিউল আলম বলেন, স্বর্ণালঙ্কার আমাদানির ক্ষেত্রে অনুমোদিত ডিলারের মাধ্যমে স্বর্ণবার আমদানির নতুন পদ্ধতি প্রবর্তন করা হবে। অনুমোদিত ডিলার নির্বাচনের কার্যক্রম বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক সম্পন্ন করা হবে। বাংলাদেশ ব্যাংক এতদুদ্দেশ্যে গাইডলাইন দ্বারা নির্ধারিত দাম নির্ধারণ করে দিবে।

তিনি বলেন, অনুমোদিত ডিলার সরাসরি স্বর্ণবার আমদানি করতে পারবেন। পাশাপাশি ডিলারগণ স্বর্ণবার অলঙ্কার প্রস্তুতকারকদের কাছে বিক্রয় করতে পারবেন। স্বর্ণ ক্রয়ের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা বিধানের লক্ষ্যে উক্ত গ্রাহক/বিক্রেতার জাতীয় পরিচয়পত্র/পাসপোর্টের কপি এবং পূর্ণাঙ্গ যোগাযোগের ঠিকানা সংরক্ষণ করতে হবে।

সচিব বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকে দেশের স্বর্ণ খাতসংশ্লিষ্ট একটি কেন্দ্রীয় তথ্যভাণ্ডার প্রতিষ্ঠা করা হবে। এতে বাৎসরিক চাহিদা, আমদানি, রপ্তানি, ক্রয়-বিক্রয়, দোকান সংখ্যা, রাজস্ব আদায়ের পরিমাণ, বাজেয়াপ্তকৃত স্বর্ণের পরিমাণ, নিলামে স্বর্ণ বিক্রির পরিসংখ্যান ইত্যাদি বিষয় অন্তর্ভুক্ত থাকবে।