সারাদেশ

শিবালয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা, স্বামী আটক

শেয়ার করুন

মানিকগঞ্জের শিবালয়ে ফ্যানের সাথে ওড়না দিয়ে গলা ফাঁস লাগিয়ে নুরুন্নাহার বন্যা (২৭) নামের এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনায় আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে স্বামী ফয়সাল হোসাইনকে আটক করেছে থানা পুলিশ। সোমবার মধ্যরাতে উপজেলার বিরাজপুর এলাকায় গৃহবধূর স্বামীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। পরে আজ মঙ্গলবার পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে দুপুরের দিকে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। আটককৃত ফয়সাল আব্দুল জলিলের ছেলে।

পুলিশ ও পরিবারিক সূত্র জানায়, পার্শ্ববর্তী ঘিওর উপজেলার শ্রীবাড়ী গ্রামের সামছুল হকের মেয়ে নুরুন্নাহার বন্যাকে প্রায় ১০ বছর আগে প্রেম করে বিয়ে করেন ফয়সাল। তাদের দাম্পত্য জীবনে দুটি কন্যাসন্তান রয়েছে। বিয়ের কয়েক বছর পার হতেই তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ শুরু হয়। এ নিয়ে একাধিকবার পারিবারিকভাবে সালিস-বৈঠক হয়। দাম্পত্য কলহের কারণে সোমবার রাতে শ্বশুর বাড়ির ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে বন্যা। ওই রাতে স্বামী ও শাশুড়ি বন্যাকে শিবালয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বন্যার বাবা সামছুল হক জানান, বিয়ের পর থেকেই তার মেয়েকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করত ফয়সাল ও তার পরিবারের সদস্যরা। তাদের পরিবারের নির্যাতন ও প্ররোচনায় মেয়েটা আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়েছে। ঘটনার সময় একই ঘরে থাকলেও ফয়সাল তাকে রক্ষা করেনি বলেও তিনি জানান।

শিবালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিজানুর রহমান জানান, এ ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী হয়ে আত্মহত্যা প্ররোচনার অভিযোগ করে। এ ঘটনায় স্বামী ফয়সালকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আর গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।