আর্ন্তজাতিক

লন্ডন ব্রিজে হামলার দায় স্বীকার করল আইএস

যুক্তরাজ্যের লন্ডন ব্রিজে গত শুক্রবার ছুরি নিয়ে হামলার ঘটনায় দায় স্বীকার করেছে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)।

তারা বলছে, হামলাকারী উসমান খান (২৮) আইএসের পক্ষ থেকে ওই হামলা চালিয়েছে। তবে এ ব্যাপারে কোনো প্রমাণ দেখাতে পারেনি তারা। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

আইএসের নিজস্ব সংবাদ সংস্থা আমাকের মাধ্যমে গতকাল শনিবার এ দায় স্বীকার করে তারা।

আইএসের দাবি, যে ব্যক্তি লন্ডন ব্রিজে হামলা চালিয়েছে, সে আইএসের একজন যোদ্ধা ছিল। আইএসের বিরুদ্ধে যেসব দেশ জোট করেছে, তাদের নাগরিকদের লক্ষ্য করে এ হামলা চালানো হয়।

লন্ডন ব্রিজে ছুরি নিয়ে হামলার ঘটনায় একজন নারী ও একজন পুরুষ নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও কয়েকজন।

এ ছাড়া ওই সময় পুলিশের গুলিতে নিহত হয় ওই হামলাকারী। হামলার সময় ওই হামলাকারী ভুয়া বিস্ফোরক ডিভাইস পরা অবস্থায় ছিল।

এদিকে মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার নীল বসু জানিয়েছেন, ওই হামলাকারীর নাম উসমান খান। ২০১২ সালে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের জন্য তাকে কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়। পরে ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে ইলেকট্রনিক ডিভাইসের মাধ্যমে তার গতিবিধি লক্ষ্য করা হবে এই শর্তে তাকে কারাগার থেকে মুক্তি দেয়া হয়েছিল।

টুইটারে লন্ডন ব্রিজ এলাকা থেকে প্রকাশ হওয়া একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, লন্ডন ব্রিজের ওপর একদল লোক ধস্তাধস্তি করছে এবং পুলিশ তাদের দিকে বন্দুক তাক করে রেখেছে। এ সময় আতঙ্কিত পথচারীদের নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে দৌড়াতে দেখা গেছে।

লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ বলছে, ছুরি নিয়ে হামলায় জড়িত মূল সন্দেহভাজন পুলিশের গুলিতে মারা গেছেন। হামলাকারী ভুয়া বিস্ফোরকজাতীয় ডিভাইস পরা ছিল বলে জানায় পুলিশ।

এদিকে এ হামলা প্রতিহত করতে পারায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রশংসা করেছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

অন্যদিকে লন্ডনের মেয়র সাদিক খানও তাৎক্ষণিক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের সাহসী ভূমিকার প্রশংসা করেন।