আজকের সেরা সংবাদ

মোদীর প্রতি পাকিস্তানি নাগরিকের আবেদন : ‘আমার বন্দী কবুতরটি ছেড়ে দিন’

শেয়ার করুন

বিডি রিপোর্ট টোয়েন্টিফোর ডটকম :

একজন পাকিস্তানি নাগরিক ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তার আটক করা কবুতরটি ফিরিয়ে দেয়ার জন্য।

এই কবুতরটি এখন ভারতে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে আটক করে রাখা হয়েছে।

এই কবুতরটির মালিক পাকিস্তানি নাগরিক হাবিবুল্লাহ থাকেন ভারত সীমান্ত থেকে মাত্র চার কিলোমিটার দূরে পাকিস্তান শাসিত কাশ্মীরের এক গ্রামে।

তিনি বলছেন ঈদ উৎসব উদযাপনের সময় তিনি কবুতরটি ছেড়ে দিয়েছিলেন।

ভারতের পুলিশ বলছে কবুতরের পায়ে একটি রিং পরানো আছে এবং সেখানে একটি সংকেত লেখা আছে। তারা এই সংকেতের অর্থ উদ্ধার করার চেষ্টা করছে।

কিন্তু কবুতরটির মালিক পাকিস্তানি নাগরিক হাবিবুল্লা বলছেন এই কোড বা সংকেত আসলে তার মোবাইল ফোন নম্বর।

কবুতরকে কেন্দ্র করে ভারত-পাকিস্তানের এই দ্বন্দ্ব নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকে নানা ব্যাঙ্গাত্মক ছবি পোস্ট করেছেন।
কবুতরকে কেন্দ্র করে ভারত-পাকিস্তানের এই দ্বন্দ্ব নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকে নানা ব্যাঙ্গাত্মক ছবি পোস্ট করেছেন।

পাকিস্তানের ইংরেজি সংবাদপত্র ডন বলছে হাবিবুল্লাহর আরও প্রায় এক ডজন কবুতর রয়েছে।

ডন পত্রিকাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে হাবিবুল্লাহ জানিয়েছেন তার কবুতরটি আসলে শান্তির প্রতীক এবং ভারতের উচিত নির্দোষ একটি পাখিকে এভাবে দোষী বানানোর কাজ বন্ধ করা।

গত সোমবার ভারত শাসিত কাশ্মীরের একটি গ্রামের লোকজন এই কবুতরটি আটক করে এবং এরপর তারা এটি পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

কাশ্মীর অঞ্চলটি নিয়ে ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে মারাত্মক বিরোধ রয়েছে।

দুটি দেশই এই অঞ্চলটিকে নিজেদের বলে দাবি করে এবং কাশ্মীরের দখল নিয়ে দুই দেশের মধ্যে বেশ কয়েকটি যুদ্ধ হয়েছে।

পাকিস্তান থেকে ভারতে উড়ে যাওয়া কোন কবুতর নিয়ে এরকম সমস্যা এটাই প্রথম নয়।

২০১৫ সালের মে মাসে ভারতে একটি সাদা কবুতরকে আটক করা হয়েছিল সীমান্তের কাছে। ১৪ বছর বয়সী একটি ছেলে এই কবুতরটিকে খুঁজে পায়।

একইভাবে ২০১৬ সালের অক্টোবর মাসে আরেকটি কবুতরকে আটক করা হয় ভারতে। এই কবুতরটির সঙ্গে পাওয়া যায় একটি চিরকুট যাতে নাকি ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীকে হুমকি দেয়া হয়েছিল।

ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে বৈরিতার ইতিহাস খুবই পুরনো। দুই দেশের মধ্যে সর্বশেষ সর্বাত্মক যুদ্ধ হয়েছিল ১৯৭১ সালে।

সূত্র : বিবিসি