বরিশাল বিভাগ

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে প্রাণ গেল দুইজনের

শেয়ার করুন

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) শিক্ষার্থীবাহী বিআরটিসি বাসের সঙ্গে টেম্পোর মুখোমুখি সংঘর্ষে ২ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ছয় যাত্রী। তারা সবাই টেম্পোর যাত্রী ছিলেন। পরে তাদের উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (শেবাচিম) ভর্তি করা হয়। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের বৈদ্যপাড়া সড়কের মুখে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, টেম্পোর যাত্রী ঝালকাঠীর কাঁঠালিয়া এলাকার বাসিন্দা আব্দুল খালেক (৬০), ও ঝালকাঠীর দেউলাকাঠীর রাজীব মিস্ত্রির স্ত্রী নিপা মিস্ত্রি (৩০)। আহতরা হলেন- শাকিল আহমেদ (১৮), ফয়সাল (২৫) হৃদয় (২৫), ইলিয়াস (২৬), রাজিব (৪২) ও আজ্ঞাত পরিচয়ের এক যুবক।

বরিশাল কোতোয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহজালাল জানান, বিআরটিসির ডাবল ডেকারের একটি বাস শিক্ষার্থীদের নিয়ে নথুল্লাবাদ বাস স্ট্যান্ড থেকে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় যাচ্ছিল। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি টেম্পুর মুখোমুখি সংঘর্ষে টেম্পুটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এ ঘটনায় ৮ জন আহত হন। এরমধ্যে দুইজনের অবস্থা গুরুতর ছিল। ঘাতক বাসটি জব্দ করা হয়েছে। তবে চালক পলাতক রয়েছেন।

শেবাচিম হাসপাতালে দায়িত্বরত কোতোয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এবি নাজমুল আহতদের বরাত দিয়ে জানান, হাসপাতালে আনার পর আব্দুল খালেককে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। পৌনে ১টার দিকে গুরুতর আহত নিপা মিস্ত্রিও মারা যান।

বিআরটিসি বরিশাল ডিপো সূত্রে জানা গেছে, ডিপোর ৬টি ডাবল ডেকার বাসের সবগুলো বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী পরিবহনের জন্য ইজারা দেয়া হয়েছে। দুর্ঘটনা কবলিত বাসটির চালক ছিলেন সোহেল রানা।