রাজনীতি

ফখরুল বললেন, সিইসি কোনো কথাই শোনেননি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে বানচাল করার চেষ্টা হচ্ছে। সরকার ও নির্বাচন কমিশন (ইসি) যৌথভাবে এ কাজ করছে। সিইসি আমাদের কোনো কথাই শোনেননি। আমরা সারাদেশে পুলিশের ধরপাকড়, হয়রানির বিষয়ে কথা বলতে চেয়েছি, তিনি তা শোনেননি। তিনি পক্ষপাতিত্বমূলক আচরণ করেছেন।বললেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আজ মঙ্গলবার নির্বাচন ভবনে সিইসির সঙ্গে বৈঠক শেষ না করেই বের হয়ে যান ঐক্যফ্রন্ট নেতারা। পরে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি। মির্জা ফখরুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, নির্বাচনের ন্যূনতম পরিবেশ তারা (সরকার ও ইসি) সৃষ্টি করতে পারছে না। যদি বলি ব্যর্থ হয়েছে, তাহলে বোধ হয় ঠিক বলা হবে না। আমাদের কাছে মনে হচ্ছে যে তারা ব্যর্থ করছে। যেন এটা বানচাল হয়ে যায়।মির্জা ফখরুল আরো বলেন, এ নির্বাচন কতটুকু সুষ্ঠু হবে, কতটুকু অবাধ হবে, কতটুকু গ্রহণযোগ্য হবে—এ প্রশ্ন তো এরই মধ্যে জাতির সামনে এসে গেছে।আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টা ৫ মিনিটে আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে সিইসির সভাকক্ষে ওই বৈঠক শুরু হয়।ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ড. কামাল হোসেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, ড. আবদুল মঈন খান, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, সুব্রত চৌধুরী, জগলুল হায়দার।বৈঠকে সিইসি কে এম নূরুল হুদা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মো. রফিকুল ইসলাম, ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, অতিরিক্ত সচিব মো. মোখলেসুর রহমানসহ ইসি সচিবালয়ের আরো অনেকে।