জাতীয়

দুই মাসের মধ্যে ৫ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ

স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছেন, আগামী দুই মাসের মধ্যে ৫ হাজার ডাক্তার নিয়োগ দেওয়া হবে।

আজ বৃহস্পতিবার সংসদে সরকারি দলের সদস্য আতিউর রহমান আতিকের এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী বলেন, ‘হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসক সংকট কাটানোর জন্য ১০ হাজার চিকিৎসক নিয়োগের প্রক্রিয়া চলছে। আগামী দুই মাসের মধ্যে ৫ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া হবে। নিয়োগপ্রক্রিয়া শেষ হলে হাসপাতালগুলোতে কোনো চিকিৎসক সংকট থাকবে না।’
বিরোধী দলের সদস্য ফখরুল ইমামের অপর এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে জাহিদ মালেক বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সরকারের একটি বিশাল মন্ত্রণালয়। সরকার দেশের ১৬ কোটি মানুষের স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে থাকে এই মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই মন্ত্রণালয়ের কাজের মাধ্যমে অনেকগুলো পুরস্কার পেয়েছেন। মানুষের গড় আয়ু ৭২ বছর হয়েছে। শিশু ও মাতৃমৃত্যুর হার কমেছে। বিশাল কর্মযজ্ঞে কিছু ভুলত্রুটি থাকতেই পারে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দুর্নীতি দমন কমিশনের একটি টিম কয়েকটি হাসপাতালে গিয়েছিল ডাক্তারদের উপস্থিতি দেখার জন্য। যদি কেউ কর্মক্ষেত্রে অনুপস্থিত থাকেন, এটাও একধরনের দুর্নীতি। তাঁরা কিছু পরামর্শ দিয়েছেন। আমরা এগুলো দেখছি, নিজস্ব নীতিমালার মধ্যে থেকে কোনগুলো গ্রহণ করব, এটা আমরা দেখব। তবে মন্ত্রণালয়ে যাতে দুর্নীতি না হয়, সে ব্যাপারে অবশ্যই চেষ্টা করব।’

মন্ত্রী বলেন, উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসক না থাকার বিষয়ে যে অভিযোগ রয়েছে, তা কাটিয়ে উঠে সার্বক্ষণিক যাতে চিকিৎসক থাকে এ ব্যাপারে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। প্রতিটি উপজেলায় ছয়জন করে চিকিৎসক দেওয়ার জন্য ইতিমধ্যে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, চিকিৎসকদের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, বিভাগীয় অফিসগুলোতে মনিটরিং সেল গঠন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে এই মনিটরিং সেল কাজ শুরু করেছে।