সারাদেশ

ত্রান বিতরন ও বাছাইয়ে কোন অনিয়ম করলে তার ছাড় নাই : নওগাঁর জেলা প্রশাসক

শেয়ার করুন

ব্রেলভীর চৌধুরী, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ ত্রান বিতরন ও বাছাইয়ে কোন অনিয়ম করলে তার কোন ছাড় নাই বলে জানিয়েছেন, নওগাঁর জেলা প্রশাসক হারুন অর রশীদ। তিনি বলেন, করোনায় দূর্যোগ মুহুর্তে সরকার খেটে খাওয়া দিন মজুরদের জন্য যে অনুদান দিয়েছেন তার জন্য তালিকা প্রস্তুত করা হচ্ছে। কর্মহীনদের আগে অগ্রাধিকার দেয়া এবং তাদের খাদ্য নিশ্চিত করা হবে। এজন্য জন প্রতিনিধি, শিক্ষক ও ভোলেন্টিয়ার সমন্বয়ে তালিক প্রস্তুত করবেন। তালিকা তৈরীর পর ত্রান সামগ্রি বিতরণ করা হবে। তবে বাছাই ও বিতরণে যদি কোন ধরনের অনিয়ম করা হয় তহালে কারও ছাড় নাই।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে নওগাঁ জেলা প্রশাসক মোঃ হারুন-অর-রশীদ প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় একথা গুলো বলেন। তিনি জানান, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে গিয়ে প্রধান মন্ত্রীর নিদের্শে দূর্যোগ ও ত্রান মন্ত্রনালয় থেকে কর্মহীন মানুষদের সহায়তায় সরকারী ভাবে নওগাঁ জেলায় মোট ৫৪১মেট্রিক টন চাল এবং নগদ ১৮লক্ষ ৩৫হাজার টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। ইতিমধ্যেই ১২৫মেট্টিক টন চাল এবং ৫লক্ষ ৭৫হাজার টাকা জেলার বিভিন্ন উপজেলায় বিতরন করা হয়েছে।

এছাড়াও বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিদের মধ্যে যারা হোম কোয়ারেনটাইন মেনে না চলায় ১৭টি মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে এমন ২৬জনের মোট ১লক্ষ ৩৭হাজার ৭শ টাকা জরিমানা, সামাজিক দুরত্ব বজায় নিয়ম মেনে না চলার কারনে ২৫টি মোবাইল কোর্টে মোট ৬৬জনের বিরুদ্ধে ৬১হাজার টাকা জরিমানা এবং ক্রেতাদের নিকট থেকে অধিক দ্রব্যমুল্য আদায়ের কারনে ১৫টি মোবাইল কোর্টে ২৫জনের নিকট থেকে ৭৮হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, রানার গ্রুপের নিকট থেকে ২হাজার পীছ পিপিই পাওয়া গেছে। এর মধ্যে এই সভায় ১হাজার পীছ পিপিই নওগাঁর সিভিল সার্জন ও হাসপাতালের তত্বাবধায়কের নিকট হস্তান্তর করেন।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মোঃ ছলিম উদ্দীন তরফদার সেলিম এমপি, পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া বিপিএম, নওগাঁ হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ মোমিনুল হক এবং সিভিল সার্জন ডাঃ আঃমঃ আখতারুজ্জামান, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব রফিকুল ইসলামসহ জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ এবং জেলার প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রিক মিডিয়ার সংবাদকর্মীবৃন্দ।