খেলাধুলা

জুয়াড়ির প্রস্তাব হালকা ভাবে নিয়েছিলেন সাকিব

শেয়ার করুন

বিডি রিপোর্ট টোয়েন্টিফোর ডটকম :

ক্রিকেট থেকে নির্বাসনে আছেন সাকিব আল হাসান। জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় এক বছরের নিষেধাজ্ঞায় রয়েছেন তিনি। যা শেষ হবে চলতি বছরের ২৯ অক্টোবর। এই এক বছরে সাকিবের না খেলার কথা ছিল ৩৩টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ।

অথচ করোনাভাইরাসের কারণে বাংলাদেশ নয় শুধু, থেমে আছে ক্রীড়াঙ্গন। আর এই সময়টা সাকিব দিচ্ছেন পরিবারকে। সম্প্রতি তার দ্বিতীয় মেয়ের জন্ম হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। সময়টা সাকিব বেশ উপভোগ করছেন দুই কন্যা আর স্ত্রীর সঙ্গে।তবে নিষিদ্ধ শব্দটা ঠিকই পোড়ায় সাকিবকে। সম্প্রতি ক্রিকবাজে ধারাভাষ্যকার হার্শা বগলের সঙ্গে আলাপনে উঠে আসে নানা কথা।

এসময় সাকিব বলেন, জুয়াড়িকে খুব একটা আমলে নেননি। তাই জানাননি বোর্ডকে। অথচ সাকিব আইসিসির বেশ কিছু দুর্নীতি দমন ক্লাসও করেন।‘আমি ব্যাপারটাকে খুব একটা হালকা ভাবে নিয়েছিলাম। আমি যখন আইসিসির দুর্নীতি দমন কর্মকর্তাদের সঙ্গে দেখা করি তখন সবই দেখাই, সব প্রমাণ দেই। আমি দেখলাম, উনারা সব জানেন। সেগুলো আমার দেয়া তথ্যের সঙ্গে মিলে গেছে। তাই শাস্তিটা কম। নইলে অন্তত ৫ থেকে ৬ বছর হতে পারত।

’হালকা ভাবে নেয়ার কারণ হিসেবে সাকিব বলেন, আমি যা করেছি সেটা অনভিজ্ঞের মতো করেছি। অথচ আমি সবই জানি। আমি আইসিসির দুর্নীতি বিষয়ক অনেক ক্লাসও করি।তবে সাকিব নিজের ভুল স্বীকার করেছেন, সাবধান করছেন সবাইকে যেন এসব বিষয় কেউ হালকা ভাবে না নেয়।