সারাদেশ

গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় পাঁচ শ্রমিক নিহত

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানিতে যাত্রীবাহী বাসের সাথে নছিমনের সংঘর্ষে পাঁচ নির্মাশ শ্রমিক নিহত হয়েছেন। শুক্রবার সকালে উপজেলার পোনা নামে স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে কাশিয়ানী উপজেলার তিতা গ্রামের রাফিক মোল্লার ছেলে বদির মোল্লা (২৪), একই গ্রামের বেলায়েত মুন্সির ছেলে সুমন মুন্সি (২০), বজলু ফকিরের ছেলে মিজান ফকির (৪০), আবি মোল্লার ছেলে সিরাজুল ইসলাম মোল্লার (৩০) নাম পরিচয় পাওয়া গেছে। বাকী একজনের নাম পরিচয় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পাওয়া যায় নি।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, খুলনা থেকে ছেড়ে আসা ফাল্গুনী পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে হাইওয়েতে ওঠার সময় শ্রমিকবাহী নসিমনের সংঘর্ষ ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই এক শ্রমিক নিহত হন ও ১২ জন শ্রমিক গুরুতর আহত হন। পরে ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ ও স্থানীয়রা গুরুতর আহতদের উদ্ধার করে কাশিয়ানী উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গিলে আরো দুইজন মারা যান। সেখান থেকে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার পথে আরো একজন নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত নয়জনকে কাশিয়ানী উপজেলা হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পারুলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুকিম মুন্সি বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নিহত ও আহত শ্রমিকরা তার ইউনিয়নের বাসিন্দা। তারা বিল্ডিংয়ের ঢালাইয়ের কাজ করতে যাচ্ছিলেন।

কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. ইকবাল খান জানান, সংঘর্ষে আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এছাড়াও ফরিদপুরে নেওয়ার পর অন্য একজনকে মৃত ঘোষণা করা হয় বলে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক অঞ্জন কুমার সাহা জানিয়েছেন। তবে নিহতের নাম জানাতে পারেননি তিনি।