বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

করোনায় পুরুষদের মৃত্যু ঝুঁকি বেশি, জিনগত কারণে নারীরা সুবিধা পাচ্ছেন

শেয়ার করুন

বিডি রিপোর্ট টোয়েন্টিফোর ডটকম :

পুরুষদের মৃত্যু ঝুঁকি বেশি, তারা করোনায় গুরুতর হচ্ছে বেশি। সাইন্স ডিরেক্ট ডট কম থেকে জানতে পেরেছি, পুরুষরা পূর্ব থেকেই অসংক্রামক ব্যাধিতে আক্রান্ত হন বেশি। হাইপারটেনশন, ডায়াবেটিস, ম্যালাইটাস, ক্রনিক রিনাল ডিজিজ ইত্যাদি ছাড়া পেশাগত অকুপেশনাল এক্সপোজার পুরুষদের বেশি এজন্য ঝুঁকি বেশি। পুরুষরা স্মোকিং, অ্যালকোহল বেশি নেয়ার, সোশ্যাল আইসোলেশন কম থাকায় আক্রান্ত হন বেশি।

অন্যদিকে নারীরা সুবিধা পাচ্ছেন কারণ তাদের ডাবল এক্স ক্রোমোজোমের জন্য নারীরা জিনগতভাবে বেশি ইমিউন থাকেন। ৪ মে গ্লোবাল হেলথ রিপোর্ট থেকে সাইন্স ডিরেক্ট ডট কমে জারিমা শর্মা ও এরিন ডি মাইকোস ফিচার প্রকাশ করেছেন। 

মঙ্গলবার (২৩ জুন) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

পুরুষদের অনুরোধ করে বলেন, পুরুষরা সতর্ক থাকবেন বেশি। যেন আরও বেশি সচেতন হন, সতর্ক থাকেন। যে স্বাস্থ্যবিধি মানতে বলি, সেগুলো মানবেন।   করোনাভাইরাস নিয়ে বাংলাদেশে উদ্বেগ কমছে না। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৪১২ জন। শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৯৪ শতাংশ। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ১৯ হাজার ২০৭ জন। আর গত ২৪ ঘণ্টায় এই ভাইরাসে মৃত্যু হয়েছে ৪৩ জনের। এখন পর্যন্ত দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৫৪৫ জন।

এদিকে আরও ৮৮০ সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে মোট ৪৭ হাজার ৬৪৫ জন সুস্থ হলেন। সুস্থতার হার ৩৯ দশমিক ৯৬ শতাংশ। মৃতের হার ১ দশমিক ৩০ শতাংশ।ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, গেল ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে পুরুষ ৩৮, নারী ৫ জন। মৃতদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে আছেন ১৬ জন, চট্টগ্রামে আছেন ১৫ জন, রাজশাহীতে ৬ জন, খুলনায় ২ জন, বরিশালে ১ জন, ময়মনসিংহে ২, সিলেটে ১ জন মারা গেছেন। মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ১১ থেকে ২০ বছর বয়সী ১ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সী ১ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী ৬ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী ১৮জন, ৬১ থেকে ৭০ বছর বয়সী ১০ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছর বয়সী ৫ জন, ৮১ থেকে ৯০ বছর বয়সী ২ জন মারা গেছেন।

গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া যায়। এরপর প্রথম দিকে কয়েকজন করে নতুন আক্রান্ত রোগীর খবর মিললেও গত ক’দিনে সংখ্যা লাফিয়ে বাড়ছে। ১৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।