হেড লাইন

করোনার পর্যবেক্ষণ ও চিকিৎসা হবে টঙ্গীর ইজতেমা মাঠে

টঙ্গীর তুরাগ নদীর পাড়ে বিশ্ব ইজতেমার ময়দানে সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে কোয়ারান্টাইন ও চিকিৎসার জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, সেনাবাহিনীর কাছে জায়গাটি ইতোমধ্যেই হস্তান্তর করা হয়েছে। এখন তারা এ জায়গাটি পরিস্কার করবে এবং সব ধরনের ব্যবস্থা নেবে।তিনি বলেন, টেস্টের জন্য এক লাখ কিট অর্ডার দেয়া হয়েছে। প্রয়োজনীয় সব সরঞ্জাম রয়েছে। উদ্বেগের কোনো কারণ নেই।

পরিস্থিতি অবনতি হলে এলাকাভিত্তিক লকডাউন করা হবে। সচিবালয়ে স্বাস্থমন্ত্রী বলেছেন
অযথা ঘোরাঘুরি না করে সবাইকে বাসাবাড়িতে অবস্থান করে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার অনুরোধ জানান তিনি।

মন্ত্রী বলেন, আক্রান্ত এলাকাগুলো লকডাউন করার বিকল্প দেখছি না। মাদারিপুর, শরীয়তপুরের কয়েকট জায়গা চিহ্নিত করা হয়েছে। এখানকার অবস্থা আরো অবনতি হলে সম্পূর্ণ লকডাউন করা হবে। জর সর্দি কাশি নিয়ে কেউ চড়বেন না। যাতায়াত সীমিত করা হয়েছে। ধর্মীয় ও সামাজিক অনুষ্ঠান সীমিত করার অনুরোধ করেন তিনি।

তিনি বলেন, সারা দেশে বিদেশ ফেরত ৫ হাজারের বেশি মানুষ কোয়ারেন্টিনে আছেন। আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ১৭ জন চিকিৎসাধীন। করোনাভাইরাসে মৃত ব্যক্তির বিষয়ে তিনি বলেন, মেয়ে ইতালি থেকে দেশে এসে বাবাকে আক্রান্ত করে আবার ইতালি চলে গেছেন। কাজেই কেউ যাতে এখন বিদেশ থেকে না আসেন সবাইকে অনুরোধ জানান মন্ত্রী।