রাজনীতি

আ’লীগ চাপাবাজিতে শক্তিশালী : রিজভী

শেয়ার করুন

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আওয়ামী লীগ সরকার যথাযথ পদক্ষেপ না নিয়ে অনেক কিছু গোপন করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, সরকারের এমপি-মন্ত্রীরা বলে যাচ্ছে তারা করোনার চাইতে শক্তিশালী! আসলে তারা মানুষের জন্য কিছুই করেনি। তারা মানুষকে বিপর্যয়ের দিকে ঠেলে দিতে শক্তিশালী। মিথ্যা কথা বলা ও চাপাবাজিতে শক্তিশালী। মানুষকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিতে তারা শক্তিশালী। তারা মানুষের দুর্যোগকালে সঠিক সময়ে মোকাবিলা করতে শক্তিশালী নয়। সুতরাং যারা জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়, তারা মানুষের জন্য ভালো পদক্ষেপ নিতে পারে না।

সোমবার সকালে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণকালে এসব কথা বলেন রিজভী। ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) এর ঢাকা মহানগর উত্তরের উদ্যোগে এসব সামগ্রী ফ্রি বিতরণ করা হয়।

মাস্ক বিতরণ শুরুর আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে রুহুল কবির রিজভী বলেন, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সারা বিশ্বে মহামারী হলেও বর্তমান বাংলাদেশের আওয়ামী লীগ সরকার এটা মোকাবিলায় দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে। তারা মানুষকে রক্ষায় কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। বরং বিএনপি ও ড্যাব সাধ্যমতো করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনগণের পাশে থেকেছে। লিফলেট বিতরণ করা হচ্ছে। আর সরকার বলছে হোম কোয়ারেন্টাইনের কথা। তারা বিমানবন্দরে যাত্রীর শরীরে সিল মেরে দিচ্ছে যে সেলফ হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। কিন্তু এই সিল তো এক গোসলেই মুছে যাচ্ছে। তাছাড়া ওই ব্যক্তি যদি বাড়িতে থাকেন তাহলে তো পরিবারের অন্যরাও ঝুঁকিতে থাকবে। সুতরাং এ বিষয়ে সরকার কোনো বক্তব্য নেই। তারা শুধু মুখে মুখে বলছে যে, তারা না কি করোনার চেয়ে শক্তিশালী! আসলে তারা হচ্ছে মিথ্যা কথা বলা ও চাপাবাজিতে শক্তিশালী।

রিজভী বলেন, আমরা একটা ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছি। শতাব্দির পর এত বড় মহাদুর্যোগ বিশ্বে আর আসেনি। আমরা জাতীয়তাবাদী দল ও দর্শনে যারা বিশ্বাসী তারা দুর্যোগকালে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি। কিন্তু দুর্যোগময় পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য সরকারের যে দায় দায়িত্ব ছিল সেটি তারা পালন করেনি। ফলে এখন একটি মহা দুর্যোগ ধেয়ে আসার সুযোগ করে দিয়েছে সরকার। আজকে চিকিৎসকরা কোনটা নিউমোনিয়া আর কোনটি করোনা সেটি নির্ণয় করতে পারছে না। কেননা চিকিৎসকরা সেই প্রস্তুতি নেয়নি। অথচ সরকার ভিন্ন খাতে ব্যস্ত থাকার কারণে আজকে লাখ লাখ মানুষ বিভিন্ন বন্দর দিয়ে দেশে ঢুকেছে। তাদের করোনা সনাক্তের কোনো পরীক্ষার ব্যবস্থা করেনি।

এসময় ড্যাবের সভাপতি অধ্যাপক ডা: হারুন আল রশিদ, ঢাকা উত্তর ড্যাবের সভাপতি ডা: সরকার মাহবুব আহমেদ শামীম, বেসরকারি ডেন্টাল ও মেডিক্যাল কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি রাকিবুল ইসলাম আকাশ সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। রিজভী পায়ে হেটে নিজে রিকশা ওয়ালা, পথচারী ও সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক ও স্যানিটাইজার এবং করোনাভাইরাস প্রতিরোধে করণীয় শীর্ষক জনসচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করেন।