SHARE

হবিগঞ্জ শহরের হোটেল রেজা থেকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক কলেজ ছাত্রীসহ ৪ যুবক-যুবতিকে বিয়ে পড়িয়ে দিল সদর থানা পুলিশ।  বৃহস্পতিবার রাত থানা কম্পাউন্ডে চাঞ্চল্যকর এ বিয়ের ঘটনা ঘটে।  জানা যায়, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সদর থানার এসআই রকিবুল হাসান ও এএসআই কাওসার আহমেদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ হবিগঞ্জ শহরের সিনেমা হল এলাকার হোটেল রেজায় অভিযান চালায়।  এ সময় হোটেলের বিভিন্ন রুম থেকে শায়েস্তাগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের ছাত্র সুহেল (২০), এবং একই কলেজের ছাত্রী জাহানারা (১৮), লাখাই উপজেলার করাব গ্রামের আব্দুল বারিকের পুত্র সুমন মিয়া (২২) ও একই গ্রামের সামির উদ্দিনের কন্যা শারমিন আক্তার (১৮) কে আটক করা হয়।  তবে অভিযান চলাকালে হোটেল ম্যানেজার শাহিন মিয়া পালিয়ে যায়।  এদিকে, আটককৃতদের থানায় নিয়ে আসার পর তাদের অভিভাবকদেরকে খবর দেয়া হয়।  সন্ধ্যায় অভিভাবকরা থানায় আসলে তাদের সম্মতিতে সুহেল-জাহানার ও সুমন-শারমিনের মধ্যে কাজী ডেকে বিয়ে পড়িয়ে দেয়া হয়।  উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরে হবিগঞ্জ শহরের বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে অসামাজিক চলে আসছে।  মাঝে মাঝে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অভিযান পরিচালনা করলেও অসাধু হোটেল মালিকদের কারণে দিন দিন বেড়েই চলেছে এসব অপকর্ম।  বিশেষ করে হবিগঞ্জ শহরের সিনেমা হল রোড এলাকার হোটেল গুলো এখন অসামাজিক কার্যকলাপের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে।  যেকারণে সিনেমা হল রোডটিকে এখন হবিগঞ্জের ‘ইংলিশ রোড’ হিসেবে আখ্যায়িত করছেন সাধারণ মানুষ।  বিষয়টি নিয়ে এখন চরমভাবে উদ্বিগ্ন স্কুল-কলেজ পুড়ুয়া ও উঠতি বয়সী যুবকদের অভিভাবকরা।

82 Views