ছেলের হত্যাকারীকে ক্ষমা করে দিলেন নিহতের বাবা

SHARE

যুক্তরাষ্ট্রের কেনটাকির এক রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ী সালাউদ্দিন জিতমাউদকে (২২) ছুরি মেরে খুন করেছিল কৃষ্ণাঙ্গ যুবক রেলফোর্ড (২৪)।  পিৎজার দোকানে ডাকাতি করতে গিয়ে বাধা পেয়ে ২০১৫ সালের ১৯ এপ্রিল খুন করা হয় তাকে।  কিন্তু ঘাতককে আটক করে বিচারকের কাঠগড়ায় আনার পর এক অনন্য নজির স্থাপিত হল।  খবর ডেইলি মেইলের।

আদালতের কাঠগড়ায় ছেলের হত্যাকারীকে জড়িয়ে ধরে সালাহউদ্দিনের বাবা আবদুল মুনিম সোমবাত জিতমউদ (৬৬) বলেন, তোমাকে ক্ষমা করে দিলাম।  বয়স কম তাই ভুল করে বড় অপরাধ করে ফেলেছ।  সামনে তোমার গোটা জীবন পড়ে আছে।  ইসলাম আমাদের ক্ষমার শিক্ষা দিয়েছে।  তুমিও ইসলামকে জানো।

কেনটাকির ফেয়েতে কাউন্টি সার্কিট আদালতের ওই কক্ষে গত মঙ্গলবার উপস্থিত সবার বিস্ময়ের ঘোর যেন কাটছিলই না।

বিচারক, আইনজীবী থেকে শুরু করে উপস্থিত সবাই অবাক হয়ে দেখলেন- রেলফোর্ডকে ক্ষমা করে সাক্ষীর স্ট্যান্ড থেকে আসামির স্ট্যান্ডে গিয়ে তাকে জড়িয়ে ধরেই থেমে থাকলেন না জিতমউদ, আবেগে বুকে জড়িয়ে ধরে রেলফোর্ডের কানে কানে সালাউদ্দিনের বাবা বললেন, ‘কোনো চিন্তা করো না।  ইসলামকে স্মরণ করবে সব সময়। ’

বিচারকসহ সবাই জানেন, মৃত্যুদণ্ডই দেয়া হবে; নয়তো যাবজ্জীবন।  থমথম করছে গোটা আদালত কক্ষ।
সেই সময় সাক্ষীর স্ট্যান্ড থেকে বিচারকের দিকে তাকিয়ে করজোড়ে আবদুল মুনিম সোমবাত জিতমউদ বলে উঠলেন- ‘অল্প বয়সের ছেলে।  ওকে ক্ষমা করে দিলাম।  ইসলাম ধর্ম ক্ষমার কথাই বলে। ’