লক্ষ্মীপুরে চিকিৎসকের অবহেলায় নবজাতকের মৃত্যু

SHARE

কবির হোসেন, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুর নিউ মডেল হাসপাতালে চিকিৎসকের অবহেলায় এক নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার রাত ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এদিকে ঘটনার প্রতিবাদে হাসপাতালের সামনে লক্ষ্মীপুর-রামগতি সড়কে রোগীরস্বজনরা বিক্ষোভ করে চিকিৎসককে এক ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রাখেন। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। রোগীর স্বজনরা জানায়, একই হাসপাতালে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে নিহত নবজাতকের মা আমেনা বেগম লিপি।

নবজাতকের খালা তাসমিনা আক্তার ও চাচা ইমাম হোসেন জানান, শুক্রবার বিকেল ৩ টার দিকে সদর উপজেলার দক্ষিণ হামছাদী ইউনিয়নের কামাল হোসেনের স্ত্রী আমেনা বেগম লিপির প্রসব বেদনা উঠে। এরপর তাকে পৌর শহরের নিউ মডেল হাসপাতালে নেয় স্বজনরা। এ সময় ওই হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. আশফাকুর রহমান মামুন সংকটাপন্ন রোগীর প্রতি গুরুত্ব না দিয়ে ব্যস্ততার অজুহাত দেখিয়ে প্রায় ৩ ঘণ্টা অপেক্ষমান রাখে। পরে ডা. এসে লিপির আল্ট্রাসনোগ্রাফি না করেই অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে লিপির সিজার করেন। এ সময় ডা. বের হয়ে নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে বলে স্বজনদের জানান। এতে স্বজনরা বিক্ষুব্ধ হয়ে চিকিৎসকের অবহেলায় নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ তুলে স্বজনরা। এরপর তারা ঘণ্টাব্যাপী চিকিৎসককে অবরুদ্ধ করে রাখেন। এক পর্যায়ে এ ঘটনার বিচার দাবি করেন স্বজনরা।

ঘটনার পর প্রভাবশালী একটি চক্র হাসপাতালের পক্ষ নিয়ে ঘটনাটি সমঝোতা করতে রোগীর স্বজনদের চাপ প্রয়োগ করছেন বলে জানান তারা। এ সময় হাসপাতাল প্রাঙ্গনে শতশত উৎসুক জনতা ভিড় জমান। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনে।

অবহেলায় নবজাতকের মৃত্যুর বিষয়টি অস্বীকার করেন চিকিৎসক ডা. আশফাকুর রহমান মামুন। তবে আল্ট্রাসনোগ্রাফী না করার কথা স্বীকার করে নবজাতকের মায়ের কথার ভিত্তিতে অপারেশন করা হয়েছে বলে জানান। এছাড়া অপারেশনের আগেই শিশুটি মারা গেছে বলেও দাবি করেন তিনি।