পরকীয়া করলে সম্পর্ক মজবুত হয়?

SHARE

পরকীয়া কথাটি মনে হলেই আমাদের চোখের সামনে ভেসে উঠে হাহাকার।  কারো জীবন নষ্ট কিংবা কারো নিহতের খবরে হয় পরিণতি।  কিন্তু এবার অদ্ভুত এক দাবী করলেন মনোবিদ অ্যাস্থার পেরেল।   ৩০ বছরেরও বেশি সময় ধরে ‘‌কাপল কাউন্সেলিং’‌ করছেন পেরেল। তার মতে পরকীয়া করলে স্বামী-স্ত্রী কিংবা প্রেমিক-প্রেমিকার মধ্যে বন্ধন আরও দৃঢ় হয়।

কিন্তু কিসের ভিত্তিতে তার এই যুক্তি?

পেরেল জানান,‘‌প্রতিটি মানুষই কোনও না কোনও অবসাদ থেকে পরকীয়ার দিকে ঝোঁকেন।  তাদের মধ্যে একটা অপরাধবোধ মনের অবচেতনে হলেও কাজ করে।  ৯৯ শতাংশ পরকীয়াই ক্ষণস্থায়ী হয়।  পরকীয়া শেষ হওয়ার পরে এই অবৈধ সম্পর্ক এদের মধ্যে একটা অপরাধবোধ কাজ করে।  সেই অপরাধবোধ থেকেই তারা সম্পর্ক আবার নতুন করে সম্পর্ক মজবুত করার দিকে মন দেন।  ’‌

পরকীয়া নিয়ে তার লিখা  ‘‌দ্য স্টেটস অফ অ্যাফেয়ার’ বইয়ে বিস্তারিত বর্ননা করেছেন তিনি।

বিশেষত যৌনজীবনে অবসাদ চলে আসে।  তখন অনেকেই নতুন সঙ্গী বা সঙ্গিনী খোঁজেন।  এক্ষেত্রে একসঙ্গে সময় কাটানো, কথা বলা একটা বড় ওষুধ হতে পারে।  আমি মনে করি যৌনতা যতটা না শারীরিক,তার চেয়ে অনেক বেশি মানসিক।  মানসিক আকর্ষণ ফিরিয়ে আনলেও পরকীয়া ঠেকানো সম্ভব।  ’‌

তবে, দাম্পত্য সম্পর্কে আকর্ষণ ফেরানোর জন্য পরকীয়া করতে মোটেও উৎসাহ দিচ্ছেন না পেরেল।  তিনি বলছেন, ‘‌উপশমের চেয়ে প্রতিকার করাটাই ভাল।  পরকীয়া জড়িয়ে পড়ার আগে সঙ্গী বা সঙ্গিনীর প্রতি আকর্ষণ তৈরি করাটাই ভাল।