SHARE

কিশোর বয়সকে অনেক সময় উদ্দীপনের বয়স বলা হলেও এই বয়সে অনেক সময় কিশোর-কিশোরীরা নানান ধরনের অপকর্মে লিপ্ত হয়।  আর এই অপরাধের প্রবনতা কিশোরদের মাঝে বেশি থাকলেও কিশোরীদের মাঝেও কম না। 

আর এমনেই একটি কাহিনী ঘটলো রাজশাহীতে।  রাজশাহী নগরে এক কলেজছাত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ, মদপানে যার মৃত্যু হয়েছে বলে পুলিশ বলছে।  

শনিবার নগরের ডাশমারি এলাকার নিজ বাড়ি থেকে রিতু খাতুনের (২০) লাশ উদ্ধার করা হয়।   

রিতু মতিহার থানার ডাশমারী পূর্বপাড়া মহল্লার মৃত নেকবর হোসেনের মেয়ে।  তিনি কমেলা হক ডিগ্রি কলেজের ছাত্রী ছিলেন। 

এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এক তরুণীসহ দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ। 

মতিহার থানার ওসি মেহেদী হাসান বলেন, স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী রিতু নেশাগ্রস্ত ছিলেন বলে তার পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন। 

পরিবারের বরাত দিয়ে ওসি বলেন, শুক্রবার রাতে মির্জাপুর কিন্ডারগার্টেন স্কুলের দ্বিতীয় তলায় সুরমা বেগম (২০) নামের এক তরুণীর বাসায় মদপান করেন রিতু। 

“সকালে অসুস্থ হয়ে পড়লে রিতুর মাকে খবর দেন সুরমা।  বাড়িতে যাওয়ার পর রিতু মারা যান। ”

ওসি বলেন, লাশ উদ্ধারের সময় তার শরীরে মদের গন্ধ পাওয়া গেছে।  এছাড়াও সুরমার বাড়িতে যে ঘরে রিতু ছিলেন সেখানেও মদের বোতল পাওয়া গেছে। 

সুরমার বাসায় মাঝেমধ্যে গিয়ে রিতু থাকতেন বলে পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, বলেন ওসি। 

ওসি বলেন, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রিতুর লাশের ময়নাতদন্ত করা হবে।  ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন হাতে পেলে মৃত্যুর কারণ নিশ্চিতভাবে বলা যাবে। 

এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সুরমা বেগম ও রেজাউল নামের দুই জনকে আটক করা হয়েছে।  থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করা হচ্ছে।  ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা। 

27 Views