SHARE

বাংলা চলচ্চিত্রের বর্তমান সময়ে সব চেয়ে জনপ্রিয় খল নায়ক তিনি।  যিনি চলচ্চিত্র এসেছেন নায়ক হিসেবে।  তবে নায়ক হিসেবে তিনি তেমন আলো না ছড়ালেও খল নায়ক নাম্বার ওয়ান বলা যায়।   এফডিসি আয়োজিত নতুন মুখ কার্যক্রমে নির্বাচিত হয়ে আসেন সিনেমা জগতে। 

ছটকু আহমেদ পরিচালিত ‘চেতনা’ ছবিতে নায়ক হিসেবে অভিনয় দিয়ে যিনি পা রাখলেন ১৯৮৬ সালে তিনি আর কেউ নন।  বর্তমান ঢাকাইয়া চলচ্চিত্রে নাম্বার ওয়ান খল নায়ক মিশা সওদাগর। 

আগামী ১২ জানুয়ারি সারাদেশে মুক্তি পেতে যাচ্ছে মিশা সওদাগর অভিনীত ‘পাগল মানুষ’ ছবিটি।   এই ছবি নিয়ে কথা বলতেই বতমান সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে বিভিন্ন কথা বলেন তিনি।  সে সময় দেশে পেশাদারিত্বসম্পন্ন প্রোডাকশন হাউস  প্রোডাকশন এসোসিয়েশন, প্রডিউসার এসোসিয়েশন নেই বলে মন্তব্য করেন তিনি।  সে সময় তিনি বলেন যদি ভালো স্কুল না থাকে তাহলে ভালো ছাত্র জন্মগ্রহণ করবে কীভাবে? । 

মিশা বলেন, বিক্ষিপ্ত দুই একটি স্কুলের ভালো রেজাল্ট দিয়ে পুরো দেশের উন্নতি হবে না।  তেমনি আমাদের দেশে বছরে দুই একটি ছবি ব্যবসা করছে।  কিন্তু দুই একটি ছবি দিয়েতো পুরো ইন্ডাস্ট্রি টিকিয়ে রাখা সম্ভব না। 

বর্তমান সময়ের সিনেমার গানের প্রসঙ্গ টেনে মিশা বলেন, গত দশ বছরে ৫টা গানও মানুষের মুখে মুখে শোনা যায়নি।  ৫টা গানও হয়নি যে গান আমি ও আমার গাড়ির ড্রাইভার বাজিয়েছি কিংবা গুনগুন করে গেয়েছি।  কিন্তু একটা সময় সিনেমার গান শোনার জন্য আমরা কয়েকবার হলে গিয়ে সিনেমা দেখেছি।  সেই গান আজ কোথায়? সিনেমার গান আজ বসে গেছে।       

তরুণ অভিনেতা-অভিনেত্রীদের নিয়ে বলেন, আজকাল নতুন যারা অভিনেতা-অভিনেত্রী আসছেন তারা সবাই কাজের চেয়ে নিজেদের ফোকাস করা নিয়ে ব্যস্ত।  নিজেদের ফোকাস করার চেয়ে কাজটাকে ফোকাস করতে হবে।  অভিনেতা-অভিনেত্রী হওয়া যত না সহজ তার চেয়ে অনেক কঠিন, নিজের মধ্যে শিল্পীসত্ত্বা তৈরি করা। 

এদিকে আগামী ১২ জানুয়ারি মুক্তি পেতে যাওয়া ছবির ব্যাপারে তিনি বলেন, আমি নিজের সেরাটা দিয়ে অভিনয় করার চেষ্টা করেছি।  এম এম সরকারের কোনো ছবি খারাপ হয়নি।  এই ছবিটিও আশা করি ভালো হবে।  আর এই ছবিতে আমাদের শাবনূর আছেন।  তার সঙ্গে কাজ করেছে নতুন একটি ছেলে শাহের খান।  তাকে আমরা যেভাবে বলেছি সেভাবে চেষ্টা করেছে ভালো করার। 

এখন পর্যন্ত ৯০০ ছবিতে খল চরিত্রে অভিনয় করে রেকর্ড সৃষ্টি করেছেন মিশা। 

32 Views