SHARE

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ১৪টি মামলা বিশেষ আদালতে স্থানান্তরকে ‘প্রতিহিংসামূলক রাজনীতির বহিঃপ্রকাশ’ হিসেবে দেখছে বিএনপি।

দলটির দাবি, বিএনপি নেত্রীকে হয়রানি করতেই এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। বিষয়টিকে গভীর ষড়যন্ত্র হিসেবে অভিহিত করেছে বিএনপি।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এই বিষয়ে কথা বলেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা ১৪টি মামলা রাজধানীর বকশীবাজারের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিশেষ এজলাসে স্থানান্তর করা হয়েছে। সোমবার আইন মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগের বিচার শাখা থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

বিষয়টিকে ষড়যন্ত্র অভিহিত করে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসনের হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলায় এমনিতে সপ্তাহে কয়েকদিন আদালতে হাজিরা দিতে হয়। নতুন মামলাগুলো বকশিবাজারে স্থানান্তরের উদ্দেশ্য হলো বেগম জিয়াকে প্রতিনিয়ত হয়রানির মধ্যে রাখা এবং অবিরাম হেনস্তা করা।’

‘বেগম খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে ব্যাঘাত সৃষ্টি করতে আওয়ামী লীগের নীলনকশা অনুযায়ী ১৪ মামলা স্থানান্তর করা হয়েছে। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন আবারো একতরফা করতে যে যড়যন্ত্র ও অপচেষ্টা চলছে এটিও তার অংশ।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী দুঃশাসনে অশান্তির আগুনে ভেতরে ভেতরে মানুষ দগ্ধ হচ্ছে। আওয়ামী সরকার বর্তমান রাজনৈতিক সংকট সমাধানের হাইওয়ের দিকে না গিয়ে চক্রান্তের হদিস করে বেড়াচ্ছে।’

মামালা কার্যক্রম স্থানান্তর ‘প্রতিহিংসামূলক রাজনীতির বহিঃপ্রকাশ’ মন্তব্য করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘এটি ক্যামেরা ট্রায়ালের মাধ্যমে বিচার কাজ পরিচালনা করার গভীর ষড়যন্ত্র। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে খালেদা জিয়াকে আরো বেশি হয়রানি করতেই সরকারের আর একটি নির্মম পদক্ষেপ।’

রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর প্রধানমন্ত্রীর মামলাসহ দলের নেতা-কর্মীদের হাজার হাজার মামলা জাদুর কাঠির ইশারায় প্রত্যাহার হয়ে যায়। আর বিএনপি চেয়ারপারসনসহ বিএনপির নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা জাল ও ভুয়া নথি তৈরি করে মিথ্যা মামলাগুলো চলে সুপারসনিক গতিতে।’

কয়েকদিন ধরে চলা শৈত্যপ্রবাহ ও তীব্র শীতে ভুক্তভোগী দুস্থদের পাশে দাঁড়াতে সবার প্রতি আহ্বান জানান রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, ‘এখন পর্যন্ত সরকারের তরফ থেকে গরিব, দুস্থ ও শীতার্ত মানুষের মাঝে পর্যাপ্ত শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়নি। বিএনপি নেতা-কর্মীসহ সমাজের বিত্তশালীদের শীতার্ত মানুষের পাশে দাড়াঁনোর আহ্বান জানাচ্ছি।’

26 Views