SHARE

বাংলাদেশে সেফটি নেট কর্মসূচির স্বচ্ছতা, দক্ষতা ও জবাবদিহিতা বাড়াতে আরো ২৪৫ মিলিয়ন ডলার দেবে দাতা সংস্থা বিশ্বব্যাংক।

এ লক্ষ্যে মঙ্গলবার শেরেবাংলা নগরের এনইসি-২ সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ সরকারের সাথে একটি ঋণচুক্তি করতে যাচ্ছে সংস্থাটি। বিকেল সাড়ে ৩টায় এই ঋণচুক্তি স্বাক্ষরিত হবে।

সংস্থাটির ঢাকা কার্যালয়ের মুখপাত্র মেহরিন এ মাহবুব রাইজিংবিডিকে বলেন, গত ১৮ ডিসেম্বর বিশ্বব্যাংক এ সংক্রান্ত একটি তহবিল অনুমোদন করে। এর আলোকে মঙ্গলবার চুক্তি স্বাক্ষরিত হতে যাচ্ছে।

বালাদেশে সরকার দরিদ্র ও দুস্থদের সহায়তা করতে বিভিন্ন সেফটি নেট কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য নেওয়া বাস্তবায়নাধীন এ সকল সেফটি নেট কর্মসূচিতে বিশ্বব্যাংক আরো অর্থ সহায়তা করছে। এই কর্মসূচির অধীন দেশের ৯০ লাখ দরিদ্র লোক অর্থ সহায়তা পাচ্ছে।

এই অর্থ সহায়তা দিয়ে বাংলাদেশে এই প্রকল্পে বিশ্বব্যাংকের মোট সহায়তার পরিমাণ দাঁড়াবে ৭৪৫ মিলিয়ন ডলার। ২০১৯ সালের ৩০ জুন এই প্রকল্প শেষ হবে। সুদমুক্ত এই লোন ৬ বছরের গ্রস পিরিয়ডসহ ৩৮ বছরে পরিশোধ করতে হবে। তবে মাত্র শূন্য দশমিক ৭৫ শতাংশ সার্ভিস চার্জ কাটা হবে।

বিশ্বব্যাংকের এই অর্থ সহায়তা দেশের সর্ববৃহৎ কর্মসূচির কয়েকটিতে দক্ষতা বাড়ানোর সহায়ক হবে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগ এই কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে।

29 Views