১৮০ আইএস যোদ্ধা ও বিদেশি মার্সেনারি হত্যা করেছে রাশিয়া

সিরিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে গত ২৪ ঘণ্টায় চালানো বিভিন্ন বিমান হামলায় জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস’র ১২০ যোদ্ধা ও ৬০ বিদেশি মার্সেনারি (ভাড়া করা যোদ্ধা) হত্যা করেছে রাশিয়া। শনিবার মস্কোতে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দেয়া এক বিবৃতিতে এ দাবি করা হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়, কয়েকদিন আগে চালানো এক বিমান হামলায় ওমার আল-শিশানিসহ তিন কমান্ডারের নিশ্চিত মৃত্যুর দাবিও করা হয়েছে। তবে আশ্চর্যজনক তথ্য হচ্ছে, ২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ও ওমারের মৃত্যুর খবর দিয়েছিল। পেন্টাগন বলেছিল, ইরাকে যুদ্ধরত আমেরিকান সৈন্যের হাতে মৃত্যু ঘটেছে ওমারের। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি। মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, কওক্যাসাসের উত্তরাঞ্চলের নিকটে অবস্থিত মায়াদিন জেলার নয়টি এলাকা ধ্বংস হয়ে যায় বিমান হামলায়। এছাড়া সন্ত্রাসীদের একটি কমান্ড পোস্ট সহ ৮০ জনের বেশি আইএস যোদ্ধা নিহত হয়। পাশাপাশি আলবু কামাল শহরে চালানো হামলায় নিহত হয় আরো ৪০ আইএস যোদ্ধা। উল্লেখ্য, মায়াদিন হচ্ছে সিরিয়ায় আইএস’র শেষ ঘাঁটিগুলোর একটি। এদিকে দেইর আযরের ইউফেরাতস ভ্যালিতে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন, তিউনিসিয়া ও মিশরের সম্মিলিত হামলায় নিহত হয়েছে ৬০ বিদেশি মার্সেনারি। মন্ত্রণালয় বলেছে, ইরাক থেকে বিশাল সংখ্যার মার্সেনারি আলবু কামাল শহরে আসছিল। মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে, কওক্যাসাসে কয়েকদিন আগে চালানো বিমান হামলায় তিন জ্যেষ্ঠ আইএস কমান্ডার ওমার আল-শিশানি, আলা আল-দীন শিশানি ও সালাহ আল-দীন শিশানির মৃত্যু ঘটেছে বলেও দাবি করা হয়। আলবু কামালে অবস্থিত এক আইএস কমান্ড পোস্টে চালানো হামলার ফলাফল সম্বন্ধে নিশ্চিত হওয়ার জন্য মস্কো কওক্যাসাসে হামলা চালানোর কয়েকদিন পর তাদের মৃত্যুর খবর প্রকাশ করে।