রসায়নেও নোবেল পেলেন তিন বিজ্ঞানী

চিকিৎসা বিজ্ঞান ও পদার্থ বিজ্ঞানের পর এ বছর রসায়নেও নোবেল পুরুস্কার ভাগাভাগি হলো তিন বিজ্ঞানীর মধ্যে।

তারা হলেন-সুইজারল্যান্ডের নাগরিক জ্যাকস ডুবোচেট, জার্মান বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক জোয়াশিম ফ্র্যাংক এবং ব্রিটিশ নাগরিক রিচার্ড হেন্ডারসন।

বুধবার (৪ অক্টোবর) স্টকহোমে রয়েন সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্স আনুষ্ঠানিকভাবে এবারে রসায়নে নোবেল বিজয়ী হিসেবে এ তিন বিজ্ঞানীর নাম ঘোষণা করে।

নোবেল কমিটি জানিয়েছে, ক্রিয়ো ইলেক্ট্রন মাইক্রোস্কপির বিকাশে অবদান রাখার স্বীকৃতিস্বরূপ তাদেরকে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। জিকা ভাইরাসসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ গবেষণা কাজে ক্রিয়ো ইলেক্ট্রন মাইক্রোস্কপির ভূমিকা অপরিসীম।

বিশ্বের ‘সবচেয়ে ক্ষুদ্র যন্ত্র’তৈরির জন্য গত বছর তিন জন বিজ্ঞানীকে রসায়নে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল।

১৯০১ সাল থেকে রসায়নে নোবেল দেওয়া হচ্ছে। এ বিভাগে নোবেল বিজয়ীর সংখ্যা দাঁড়ালো ১৭৫ জনে।

সুইডিশ বিজ্ঞানী আলফ্রেড নোবেলের শেষ ইচ্ছা অনুসারে গবেষণা, উদ্ভাবন ও মানবতার কল্যাণে অবদানের জন্য প্রতি বছর চিকিৎসা, পদার্থ বিজ্ঞান, রসায়ন, সাহিত্য, শান্তি ও অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়।