যে কারণে শিরোনামহীন ছাড়লেন তুহিন

তারুণ্যের জনপ্রিয় ব্যান্ড শিরোনামহীন। আর যার কণ্ঠে এ ব্যান্ডের গানগুলো শ্রোতাপ্রিয়তা পেয়েছে তিনি হলেন তানযীর তুহিন। ব্যান্ডটির প্রধান ভোকাল তিনি। কিন্তু হঠাৎ করেই শিরোনামহীন ছাড়ার ঘোষণা দিলেন তিনি। শুক্রবার সন্ধ্যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের অ্যাকাউন্ট ও ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে ব্যান্ড ছাড়ার বিষয়টি সবাইকে জানান তিনি। স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, আমি তানযীর তুহীন, ব্যক্তিগত কারণে শিরোনামহীন ব্যান্ড থেকে সরে যাচ্ছি। তবে কী অন্য ব্যান্ডের মতোই ভাঙনের শিকার শিরোনামহীন? জানা গেছে, গত ২১শে সেপ্টেম্বর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন তুহিন। ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) ভর্তি ছিলেন। তার হার্টের রক্তনালীতে ছোট্ট একটা ব্লক পাওয়া গেছে। অস্ত্রোপচার লাগেনি। চিকিৎসক বলেছেন ওষুধেই ঠিক হয়ে যাবে। এক মাস চিকিৎসকের পরামর্শে চলতে বলেছেন তাকে চিকিৎসক। তাহলে ব্যান্ড ছাড়ার আসল কারণটা কি? তুহিন বলেন, আমি যখন অসুস্থ, তখন ব্যান্ডের সদস্যদের কাছে বন্ধুত্বের চেয়ে অর্থ মুখ্য হয়ে যায়। তারা একটি শোও মিস করতে চায়নি।
ভেবেছে আমি সুস্থ হব না, গান গাইতে পারব না। আমার জায়গায় আরেকজন কণ্ঠশিল্পীকে যুক্ত করে তারা। আমার একটাই প্রশ্ন এক মাস শো না করলে শিরোনামহীন ব্যান্ডের কী এমন ক্ষতি হতো? কিছু টাকা না হয় কম আয় হতো। ১৯৯৬ সাল থেকে আমি শিরোনামহীনে রয়েছি। ব্যান্ডের ফাউন্ডার মেম্বার আমি। ২১ বছর আমরা একসঙ্গে ছিলাম। আমি এই সময় নিজের কথা ভাবিনি, পরিবারের কথা ভাবিনি। ভেবেছি কেবল ব্যান্ড নিয়ে।