মুক্তামনির আরেকটি অস্ত্রোপচার সম্পন্ন

বিরল রোগে আক্রান্ত মুক্তামনির হাতে স্কিন গ্রাফটিংয়ের প্রাথমিক ধাপ সম্পন্ন হয়েছে। এ নিয়ে তার আরেকটি অস্ত্রোপচার হলো।  রোববার সকাল ১০টায় স্কিন গ্রাফটিংয়ের প্রাথমিক ধাপের কাজ শেষ করেন চিকিৎসকরা। এর আগে সকাল ৮টায় মুক্তামনিকে অপারেশন থিয়েটারে নেয়া হয়। প্রথম ধাপ সম্পন্ন শেষে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের পরিচালক অধ্যাপক আবুল কালাম বলেন, স্কিন গ্রাফটিংয়ের কয়েকটি ধাপ রয়েছে। সে হিসেবে মুক্তামনির প্রাথমিক ধাপ সম্পন্ন হলো। আজ হাতটি স্কিন গ্রাফটিংয়ের জন্য উপযুক্ত করা হয়েছে। ফলে মুক্তামনি সুস্থ হওয়া পথে আরও একধাপ এগিয়ে গেল।
অপারেশন থিয়েটার থেকে বেরিয়ে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, আজ মুক্তামনির স্কিন গ্রাফটিংয়ের প্রাথমিক ধাপ শুরু হলো। শারীরিকভাবে সে ভালো আছে।
প্রসঙ্গত, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাতক্ষীরার ১১ বছরের মেয়ে মুক্তামনি ‘লিমফেটিক ম্যালফরমেশন’ রোগে আক্রান্ত। এই রোগের কারণে তার এক হাত ফুলে গিয়ে দেহের চেয়েও ভারী হয়ে ছিল। গত চার বছর ধরে এই হাতের ‘বোঝ’ বয়ে বেরিয়েছে মুক্তামনি। শরীরের অসহ্য যন্ত্রণায় তার স্বাভাবিক কোনও জীবন ছিল না। এই রোগের সঙ্গে সে রক্তশূণ্যতা ও অপুষ্টিতেও আক্রান্ত ছিল।