ক্ষেপণাস্ত্র বের করে কোন দিকে নিচ্ছে উ. কোরিয়া?

উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার উত্তেজনার মধ্যে উদ্বেগজনক এক তথ্য দিয়েছে সিউলের সংবাদমাধ্যম। তারা বলেছে, সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র প্রস্তুত ও রাখার স্থাপনা থেকে কয়েকটি ক্ষেপণাস্ত্র সরিয়ে অন্য দিকে নেওয়ার চিত্র ধরা পড়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার গোয়েন্দাদের নজরে। দুপক্ষের চলমান উত্তেজনায় উত্তর কোরিয়া কোনো উস্কানিমূলক কাণ্ড ঘটিয়ে বসতে পারে বলে চলমান শঙ্কার মধ্যে এই গোয়েন্দা তথ্য পাওয়া গেলো।

শুক্রবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাতে দক্ষিণ কোরিয়ার সম্প্রচার মাধ্যম কেবিএসের এক প্রতিবেদনে এ বিষয়ে বলা হয়, পিয়ংইয়ংয়ের উত্তরাঞ্চলের সানাম-ডং এলাকায় অবস্থিত উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র গবেষণা ও উন্নয়ন স্থাপনা থেকে সম্প্রতি বেশ কয়েকটি ক্ষেপণাস্ত্র সরিয়ে অন্য কোনো দিকে নেওয়ার চিত্র ধরা পড়েছে।

তবে কখন কোথায় ওই ক্ষেপণাস্ত্রগুলো সরানো হয়েছে সে বিষয়ে কিছু জানায়নি কেবিএস।ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা পর্যবেক্ষণ করছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনগোয়েন্দা সূত্রের বরাত দিয়ে সম্প্রচার মাধ্যমটি জানিয়েছে, ক্ষেপণাস্ত্রগুলো মাঝারি পাল্লার হাওয়াসং-১২ অথবা আন্তঃমহাদেশীয় হাওয়াসং-১৪ হতে পারে। অবশ্য সানাম-ডং এলাকার ওই স্থাপনায় আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্রই প্রস্তুত করা হয়ে থাকে।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু বলা না হলেও সম্প্রতি সিউলের পক্ষ থেকে শঙ্কা প্রকাশ করে জানানো হয়, ১০ অক্টোবর উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীকে ঘিরে পিয়ংইয়ং কোনো উস্কানিমূলক কাণ্ড ঘটিয়ে বসতে পারে।

এই উত্তেজনা-শঙ্কার মধ্যে ক’দিন আগে আবার যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া ওই অঞ্চলে প্রথমবারের মতো স্বল্প পাল্লার আকাশ প্রতিরক্ষা বিষয়ে যৌথ মহড়া চালায়। এমনকি আগামী কয়েক মাসের মধ্যে এ ধরনের মহড়া ফের চালানো হবে বলেও জানানো হচ্ছে।

কয়েক মাস ধরে উত্তর কোরিয়া যে ক্ষেপণাস্ত্র ও আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর পরীক্ষা চালিয়েছে, সেগুলো যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডে আঘাত হানতে সক্ষম বলে পিয়ংইয়ং হুঁশিয়ারি দিলেও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষ থেকে বলা হয়, আত্মরক্ষার প্রয়োজনে উত্তর কোরিয়াকে ধ্বংস করে দেওয়া হবে।