আর্ন্তজাতিক

স্বাক্ষরের আগে কেন কলম পাল্টালেন কিম?

দুই দেশের বিরোধকে আপাতত ইতি টেনেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প ও কিম জং উন। নানা কারণে বারবার আলোচনায় এসেছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন। কিমের নিরাপত্তা ব্যবস্থা সর্বদা অত্যন্ত কঠোর থাকে। আর সেই নিরাপত্তা যে কতটা কঠোর তা দেখা গেল সিঙ্গাপুরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকের চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে।

যৌথ ঘোষণায় স্বাক্ষরের সময় ট্রাম্প ও উনের সামনে ছিল একটি করে কলম। স্বাক্ষরের আগ মুহূর্তে হঠাৎ সেই কলমের প্রতি নজর পড়ে উত্তর কোরিয়ার নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের। এরপর কিমের একজন নিরাপত্তা কর্মকর্তা দস্তানা পরে সাদা একটি কাপড়ে কলমটি ঘষা শুরু করেন। কলমটি নিয়ে সন্দেহ দেখা দেওয়ায় তা কিমের হাতে দিতে চাচ্ছিলেন না তিনি।

সেই ঝামেলা এড়াতে এগিয়ে আসেন কিমের বোন কিম উ-জং। তিনি পাশেই ছিলেন। দ্রুত তিনি আরেকটি কলম বাড়িয়ে দেন ভাইয়ের হাতে। এই কলমটিই নিরাপদ মনে করছিলেন তিনি, কারণ এটি তিনি সঙ্গে করেই নিয়ে এসেছিলেন। এরপর নিজেদের সেই কলমেই কোরিয়া উপদ্বীপে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের অঙ্গীকারের ঐতিহাসিক দলিলে সই করেন কিম।

সর্বদা জীবাণু অস্ত্র নিয়ে সতর্ক থাকেন কিম। এছাড়া কিমের দেহের কোনো নমুনা যেন কারও হাতে না পড়ে, সে বিষয়ে সব সময়ই সতর্ক কমিউনিস্ট রাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ার নিরাপত্তা বাহিনী। আর সেসব কারণেই বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে থাকেন কিম।