আজকের সেরা সংবাদ

রোজায় ক্রেতাদের অতিচাহিদার সুযোগ নেন ব্যবসায়ীরা: বাণিজ্যমন্ত্রী

রমজান মাস এলেই বাজারে নিত্যপণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ার খবর শোনা যায়। এক্ষেত্রে ভোক্তারাও দায়ী। কারণ তারা পণ্য একসঙ্গে কিনতে চান। আর এ কারণে ব্যবসায়ীরা সুযোগ নেন। তাই এ মাসে ক্রেতাদেরও সংযমী হতে হবে। বললেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

সোমবার সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বেসরকারি টেলিভিশন ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের (অ্যাটকো) সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন,আমাদের মজুদ পরিস্থিতি ভালো রয়েছে। বাজারে পণ্যের দ্রব্যমূল্য নিয়েও আমরা সার্বিকভাবে সন্তুষ্ট। এবার রমজানে মানুষের ওপর চাপ পড়বে না।

রোজা সামনে রেখে আমাদের মনিটরিং টিম যথেষ্ট সচেতন আছে।যে কোনও উৎসবের সময় বেশি ক্রয় করে চাহিদা বাড়িয়ে দেয়া বাংলাদেশের ক্রেতাদের একটি অভ্যাস বলেও মন্তব্য করেন টিপু মুনশি।তিনি বলেন,তারা সব একেবারে একসঙ্গে কিনতে চান।ফলে ব্যবসায়ীরা সুযোগ পেয়ে যান।

তাই রমজানে ক্রেতা-বিক্রেতা সবাইকে সংযমী হয়ে চলতে হবে। যথেষ্ট মজুদ আছে, কোনো রকমের ঘাটতি হবে না।বৈঠকে সংযমের মাসে ব্যবসায়ীদের সততার সঙ্গে ব্যবসা করার তাগিদ দেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

তিনি আরও বলেন,বর্তমানে বাজারে শাক-সবজির দামসহ পেঁয়াজ ও চিনির দাম কিছুটা বেড়েছে। তবে দেশের বাজারে একটি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান তেলের দাম দুই টাকা কমিয়েছে। রোজাকে সামনে রেখে ছোলার দাম বাড়ার সুযোগ নেই।

এ মাসে প্রতিদিন বাজারে অভিযান চালানো হবে বলেও জানান তিনি। বলেন, রমজানে প্রতিদিন মন্ত্রণালয়ের চারটি টিম রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে অভিযান পরিচালনা করবে। তবে এতো বড় বাজার চারটি টিম দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করা যায় না। তারপরও আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। আগামীতে আমাদের জনবল বাড়ানোর জন্য আলোচনা চলছে। রাতারাতি জনবল বাড়ানো যায় না।