সারাদেশ

রাস্তায় ৩ কলেজছাত্রীকে মারধর, দুই দিনেও আটক হয়নি কেউ

মৌলভীবাজারে তিন কলেজছাত্রীকে শারীরিকভাবে আঘাত ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ৭ জনকে আসামি করে মামলা হয়েছে। মামলার আসামিরা হচ্ছেন- নাভেদ, সায়েম, মুন্না ও লোকমানসহ অজ্ঞাত আরও ৩ জন। তবে এখনো কোন আসামিকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। অবিলম্বে দোষীদের শাস্তির দাবী জানিয়েছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। জানা যায়, মৌলভীবাজার সরকারী কলেজ হোস্টেলের পাশে বড়বাড়ী এলাকায় একটি বাসায় থাকেন মৌলভীবাজার সরকারী কলেজের ২ ছাত্রী এবং সরকারী মহিলা কলেজের ১ ছাত্রী। তারা কলেজ থেকে যাওয়া আসার পথে প্রায়ই তাদেরকে উত্যক্ত করে আসছিল ওই বাড়ির মালিকের ভাতিজা নাভেদসহ কয়েক জন বখাটে। উত্যক্তের প্রতিবাদ করে ওই তিন ছাত্রী ১৩ মে বিকেলে নাভেদের বাসায় নালিশ দেয়ার পর তাদেরকে মারধর ও লাঞ্ছিত করে নাভেদসহ তার সঙ্গীরা।  ছাত্রীদের অভিযোগ, তাদের মধ্যে একজনের চুলের মুঠি ধরে, আরেকজনের গলা টিপে এবং অন্যজনকে মাটিতে ফেলে মারধর করা হয়। এছাড়া প্রত্যেকের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে শ্লীলতাহানি করা হয় বলে জানান তারা।পরে ওই কলেজছাত্রীদের উপর আঘাত ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে ওই দিন রাতেই শিশু ও নারী নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন তাদের অভিভাবকরা। এ ব্যাপারে মৌলভীবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন বলেন, আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।