অর্থনীতি

রপ্তানি আয় বেড়েছে ৩০ শতাংশ

বাংলাদেশের রপ্তানি আয় দিন দিন বাড়ছে। প্রতি মাসেই ঊর্ধ্বমুখী অর্থনীতির এই সূচক। গত অক্টোবর মাসে আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ৩০ শতাংশের বেশি রপ্তানি আয় এসেছে। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও বেশি।রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) রপ্তানি আয়ের যে হালনাগাদ তথ্য প্রকাশ করেছে তাতে এ চিত্র উঠে এসেছে।ইপিবির তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রথম চার মাসে (জুলাই-অক্টোবর) বিভিন্ন পণ্য রপ্তানি থেকে ১ হাজার ৩৬৫ কোটি ১৮ লাখ  ডলার আয় হয়েছে। গত বছরের একই সময়ের চেয়ে যা ১৮ দশমিক ৬৫ শতাংশ বেশি। এই চার মাসে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে আয় বেড়েছে ১২ দশমিক ৫৭ শতাংশ।জুলাই-অক্টোবর সময়ে রপ্তানি আয়ের লক্ষ্য ধরা হয়েছিল ১ হাজার ২১২ কোটি ৭০ লাখ ডলার। গত বছরের এই চার মাসে আয় হয়েছিল ১  হাজার ১৫০ কোটি ৫৮ লাখ ডলার।এর মধ্যে অক্টোবরে ৩৭১ কোটি ১২ লাখ ডলার রপ্তানি আয় এসেছে। এই মাসে লক্ষ্য ধরা ছিল ২৭৯ কোটি ৭০ লাখ ডলার। গত বছরের অক্টোবরে আয় হয়েছিল ২৮৪ কোটি ৩০ লাখ ডলার।এ হিসাবে অক্টোবর মাসে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে আয় বেড়েছে ৩২ দশমিক ৬৮ শতাংশ। আর পয়েন্ট-টু-পয়েন্ট (মাসভিত্তিক) আয় বেড়েছে ৩০ দশমিক ৫৩ শতাংশ।বিশ্লেষকরা বলছেন, মূলত পোশাকের ওপর ভর করে রপ্তানি খাতে এই উন্নয়ন হচ্ছে। আমাদের পোশাকের প্রতি ক্রেতাদের আস্থা দিন দিন বাড়ছে। যা আমাদের অর্থনীতিকে আরও সামনে দিকে নিয়ে যাচ্ছে।ইপিবির তথ্য পর্যালোচনায় দেখা যায়, জুলাই-অক্টোবর সময়ে মোট রপ্তানি আয়ের ৮৩ শতাংশই এসেছে তৈরি পোশাক রপ্তানি থেকে। প্রবৃদ্ধি হয়েছে ২০ শতাংশের বেশি।তবে বিশ্লেষকরা বলছেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নকে ধরে রাখতে হলে শুধু পোশাকের ওপর নির্ভর করলেই চলবে না। পোশাক বহির্ভূত পণ্যের ওপরও জোর দিতে হবে।