আর্ন্তজাতিক

যৌন হয়রানি বন্ধে সৌদি মন্ত্রিসভায় কঠোর আইন প্রণয়ন

সৌদি আরবে পুরুষদের সাথে নারীদের একসাথে চলাফেরার অধিকার স্বীকৃতি পাওয়ার পর এবার যৌন হয়রানি বন্ধে নতুন আইন করতে যাচ্ছে দেশটি। মঙ্গলবার দেশটির মন্ত্রিসভায় এ সংক্রান্ত একটি খসড়া আইন পাস হয়েছে।  নতুন এই আইনে যৌন হয়রানির জন্য পাঁচ বছর কারাদণ্ড ও ৮০ হাজার ডলার পর্যন্ত জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে।

দেশটির তথ্য মন্ত্রণালয়ের বরাতে দিয়ে বিবিসিসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মাদ বিন সালমানের সংস্কার প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।
সৌদি আরবের সুরা কাউন্সিলের উপদেষ্টা পরিষদের বৈঠকে সোমবার খসড়া আইনটির অনুমোদন দেওয়া হয়। মঙ্গলবার এটি অনুমোদন করে মন্ত্রিসভা।

সৌদি আরবের তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছ, খসড়া বিলটি সৌদি আরবের আইনের ইতিহাসে খুবই গুরুত্বপূর্ণ সংযোজন। এর মাধ্যমে একটি বড় আইনি শূন্যতা পূরণ হলো। যৌন হয়রানি রোধে এটি একটি বড় উদ্যোগ।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ২৩৬ পাতার সরকারি নির্দেশিকায় সৌদি সরকারের পক্ষে ঘোষণা করা হয়েছে, এখন থেকে অফিস, রেস্তোরাঁ, বিনোদন কেন্দ্র, ক্রীড়াস্থল, হাসপাতাল, দোকান ও বাজারের মতো সর্বসাধারণের জায়গায় পুরুষদের সঙ্গেই একসঙ্গে যাতায়াত করতে পারবেন নারীরা। দৈনন্দিন লেনদেন চলাকালীন নামাজের জন্য ব্যবসা বন্ধ রাখার সনাতনী প্রথাও তুলে দিয়েছে দেশটি।

এর আগে এধরনের প্রকাশ্য স্থানে পুরুষদের সঙ্গে একসঙ্গে চলাফেরার অধিকার ছিল না নারীদের। তাদের জন্য আলাদা সময় এবং স্থান নির্দিষ্ট ছিল।