আর্ন্তজাতিক

যৌথ মহড়া : রাশিয়া ও মিত্রদের রক্ষার অঙ্গীকার পুতিনের

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, তার দেশের সামরিক বাহিনীর মহড়াগুলো একইসঙ্গে প্রতিরক্ষামূলক ও আক্রমণাত্মক। তিনি রুশ সামরিক বাহিনীকে আরও শক্তিশালী করারও অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন।

রাশিয়া, চীন ও মঙ্গোলিয়ার অংশগ্রহণে ভস্টক-২০১৮ সামরিক মহড়া পরিদর্শনের সময় আজ বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্ট পুতিন এসব অঙ্গীকার করেন।

তিনি বলেন, রুশ সামরিক বাহিনীকে আরো অত্যাধুনিক অস্ত্র ও প্রযুক্তি সরবরাহ করা হবে। এসব সরঞ্জাম রাশিয়া ও মিত্রদের রক্ষার ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখবে।

পুতিন বলেন, দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য সামরিক বাহিনীকে প্রস্তুত রাখা আমাদের দায়িত্ব।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, স্নায়ুযুদ্ধ অবসানের পর এটাই সবচেয়ে বড় মহড়া চালাচ্ছে রাশিয়া। এতে রাশিয়ার তিন লাখ সেনার পাশাপাশি চীনের সেনা রয়েছে সাড়ে তিন হাজার।

গত মঙ্গলবার মহড়া শুরু হয়েছে এবং আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তা চলবে। রাশিয়ার পাঁচটি অঞ্চলে এ মহড়া চলছে। এতে অংশ নিচ্ছে রাশিয়ার হাজার হাজার ট্যাংক, কম্ব্যাট হেলিকপ্টার, জঙ্গিবিমান, যুদ্ধজাহাজ ও সাবমেরিন।