আর্ন্তজাতিক

মোদির বিজয়রথ থামিয়ে দিলেন রাহুল!

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের বাকি মাত্র কয়েক মাস। কিন্তু তার আগেই থেমে গেল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিজয়রথ!

আর এ রথের রাশ টেনে ধরলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। কংগ্রেস সভাপতি পদে আসিন হওয়ার ঠিক এক বছর পূর্ণ হওয়ার দিনেই রাহুলের এ বিজয়। পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা ভোটের ফলে সেই অর্থে মোদির বিজেপিকে ধবলধোলাই করে দিলেন তিনি।

মোদির জমানায় প্রথমবার হিন্দিবলয়ের তিনটি গুরুত্বপূর্ণ রাজ্যে বিজেপিকে হারালেন তিনি। যদিও রাত পর্যন্ত মধ্যপ্রদেশ নিয়ে রহস্যই তাদের কাছে একমাত্র আশার আলো। মঙ্গলবার রাতে হার মেনে টুইটারে কংগ্রেসকে অবশ্য অভিনন্দন জানালেন মোদি।

লোকসভার আগে ওই পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা ভোটকে ধরা হয়েছিল সেমিফাইনাল হিসেবে। অন্যদিকে কংগ্রেস অবশ্য মিজোরামে ক্ষমতা হারিয়েছে। তেলঙ্গানাতেও চন্দ্রবাবু নায়ডুর সঙ্গে তাদের জোট কাজে এলো না। বিধানসভা ভেঙে দিয়ে ভোট এগিয়ে আনার চালেই সেখানে সফল হলেন চন্দ্রশেখর রাও।

কিন্তু গোটা দেশের চোখ আজ যেদিকে ছিল, সেই হিন্দিবলয়ের রাজস্থান এবং ছত্তিশগড়ে বিজেপিকে হারিয়ে ক্ষমতায় ফিরল কংগ্রেস।

যদিও মাত্র দুটি আসনের জন্য রাজস্থানে কংগ্রেস একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেল না। আর হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে মধ্যপ্রদেশে রাত পর্যন্ত ম্যাজিক সংখ্যার নিচেই থেকে গেছে দুদল।

সেখানেও সরকার গড়া নিয়ে নিশ্চিত কংগ্রেস। কারণ অখিলেশ ও মায়াবতীর দল সেখানে আসন পেয়েছে, যা সরকার গড়ার অন্যতম চাবি হয়ে উঠেছে।
ফলের একদিন আগেও মোদির প্রধান সেনাপতি অমিত শাহ বড় মুখ করে বলছিলেন-সব রাজ্যেই জিতবে বিজেপি। সকালে সংসদে গেলেও ভোটের ফল স্পষ্ট হওয়ার পর তাকে আর দেখা যায়নি। রাতে টুইট করে তেলেঙ্গানায় জয়ের জন্য চন্দ্রশেখর রাওকে ধন্যবাদ জানালেও তিন রাজ্যের হার নিয়ে টু শব্দটি আর করেননি বিজেপি সভাপতি।

আর সারা দিন চুপ থেকে রাতে টুইট করে মোদি বললেন, নির্বাচনে হারজিত থাকবেই। তিন রাজ্যে বিজয়ের জন্য কংগ্রেসকে অভিনন্দন জানালেন এবং সেই সঙ্গে নিজেদের এমন দুর্দিনেও কংগ্রেসকে তেলেঙ্গানা ও মিজোরামে তাদের ব্যর্থতার কথাও মনে করিয়ে দিলেন মোদি। মোদি-শাহের এতদিনের দম্ভ চুরমার করে উনিশটি রাজ্য থেকে তিনটি প্রায় খসিয়ে দিলেন রাহুল।

এ ব্যাপারে রাহুল বলেন, ‘বিজেপিমুক্ত ভারত’ গড়া তার দর্শন নয়। এ কথার মধ্য দিয়ে তিনি মোদির ‘কংগ্রেসমুক্ত-ভারত’ বলে কংগ্রেসবিরোধী প্রচারের কথা সবাইকে মনে করিয়ে দিয়ে মোদির সঙ্গে ফারাকটি বুঝিয়ে দিলেন। তিনি আরও বলেন, ‘লড়াই চলবে, কিন্তু কাউকে দেশ থেকে মুছে ফেলা আমাদের লক্ষ্য নয়। মোদিই আমাকে শিখিয়েছেন-কী করতে নেই।’ তিন রাজ্যের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রীকেও তাদের কাজের জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন রাহুল গান্ধী।