জাতীয়

বিশ্ব মিডিয়ায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া ট্রেন দুর্ঘটনা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনার খবর আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে উঠে এসেছে। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ১৬, আহতের সংখ্যা বহু।

সোমবার দিবাগত রাত তিনটার পর চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী তূর্ণা নিশিথা ও সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী উদয়ন এক্সপ্রেসের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে।

এই ঘটনা নিয়ে মার্কিন সংবাদ সংস্থা রয়টার্স, ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি অনলাইন, জার্মানির ডয়চে ভেলে, তুরস্কে আনাদলু, সৌদি আরবের আরব নিউজ, সিঙ্গাপুরের স্ট্রেইটস টাইমস, ভারতের এনডিটিভি, ইন্ডিয়া টুডে, টাইমস অব ইন্ডিয়াসহ একাধিক বিদেশি মিডিয়া ভয়াবহ এই ট্রেন দুর্ঘটনার খবর প্রকাশ করেছে।

রয়টার্স শিরোনাম করে, বাংলাদেশে দুই ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে মারা গেছেন ১৬ জন, আহত ৪০।

মার্কিন সংবাদমাধ্যমটি জানায়, রাজধানী ঢাকা থেকে ১০০ কিলোমিটার দূরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ঢাকা ও চট্টগ্রামগামী দুইটি ট্রেনের মধ্যে এই সংঘর্ষ ঘটে।

দুর্ঘটনায় বেঁচে যাওয়া মোসলেম নামে এক যাত্রী রয়টার্সকে বলেন, ‘ট্রেন থেকে বেরিয়ে দেখি ছিন্নবিচ্ছিন্ন শরীর পড়ে আছে। কারও মাথা বিচ্ছিন্ন, কারও হাত, কারও পা।’

তিনি বলেন, ‘আমরা মৃত্যুর খুব কাছে ছিলাম। কিন্তু আল্লাহ আমাদের বাঁচিয়েছেন।’

একটি ট্রেন সিগন্যাল অমান্য করায় দুই ট্রেন এক লাইনে চলে আসায় এই ট্র্যাজেডি ঘটে বলে জানিয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তা শ্যামল কান্তি দাস।

রয়টার্সসহ অন্যান্য সংবাদমাধ্যমগুলোও একইভাবে হতাহতের খবর প্রকাশ করে। নিহতের সংবাদ ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শোক প্রকাশের বিষয়টিও গুরুত্ব পায় এতে।

SHARE