অর্থনীতি

বিশ্ব অর্থনীতিতে ১৪ বছরে ১৭ ধাপ এগুবে বাংলাদেশ: সিইবিআর

নিজেকে এগিয়ে নেয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিশ্ব অঙ্গনেও এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। ২০১৯ সালে বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতির দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশকে ৪১তম অবস্থানে রেখেছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক একটি থিঙ্কট্যাঙ্ক প্রতিষ্ঠান। ২০৩৩ সালে যা আরও ১৭ ধাপ এগিয়ে আসবে। ব্রিটিশ এই প্রতিষ্ঠানের গত বছরের করা তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান এখন ৪৩তম স্থানে রয়েছে। ওই থিঙ্কট্যাঙ্ক প্রতিষ্ঠানের বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, বৃহত্তম অর্থনীতির দেশের তালিকার শীর্ষ পাঁচে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, জাপান, জার্মানি ও ভারত। এশিয়ার অন্যান্য অনেক দেশের ন্যায় আগামী ১৫ বছরে তাৎপর্যপূর্ণ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ঘটবে বাংলাদেশের।লন্ডনে সেন্টার ফর ইকোনমিকস অ্যান্ড বিজনেস রিসার্চের (সিইবিআর) ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক লিগ শীর্ষক ওই তালিকায় বাংলাদেশের অর্থনীতি নিয়ে এই পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে। এতে বলা হয়, আগামী ২০২৩ সালে বাংলাদেশ ৩৬তম, ২০২৮ সালে ২৭তম এবং ২০৩৩ সালে ২৪তম বৃহৎ অর্থনীতির দেশে পরিণত হবে।সম্প্রতি প্রকাশিত সিইবিআরের দশম সংস্করণে বলা হয়েছে, ২০১৮ থেকে ২০৩৩ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার গড়ে ৭ শতাংশ হতে পারে। এর ফলে দেশটি ২০৩৩ সালে ২৪তম বৃহৎ অর্থনীতির দেশের জায়গা দখল করবে।ব্রিটিশ এই প্রতিষ্ঠানের বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, তৈরি পোশাক রফতানি, শক্তিশালী রেমিট্যান্স বৃদ্ধি, ভারতীয় বাজারে শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার, দেশীয় ও সরকারি ব্যয়ে বাংলাদেশ ইতিবাচক অবস্থানে রয়েছে। প্রায় ৪৩ শতাংশ বাংলাদেশি কৃষি কর্মের সঙ্গে যুক্ত; যাদের অধিকাংশই ধান এবং পাট উৎপাদন করেন।