খেলাধুলা

বার্নাব্যুতে যাচ্ছেন মেসি, রোনালদো যাবেন তো?

আগামী ৯ ডিসেম্বর আর্জেন্টাইন ‘সুপারক্ল্যাসিকো’তে মুখোমুখি হবে বোকা জুনিয়র্স এবং রিভার প্লেট। মারামারির ঘটনায় কোপা লিবার্তোদোরেস ফাইনালের ফিরতি লেগ হবে স্প্যানিশ ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদের মাঠ বার্নাব্যুতে। আর্জেন্টাইন ‘সুপারক্ল্যাসিকো’র ফাইনাল দেখতে আমন্ত্রিত ‘এল ক্ল্যাসিকোর’ দুই সুপারস্টার লিওনেল মেসি ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট এই ফাইনালকে স্বাগত জানিয়ে ঘোষণা দেয়, ম্যাচটির জন্য তারা ‘সর্বোত্তম পরিবেশ’ সৃষ্টি করবেন। তাই ‘সুপারক্ল্যাসিকো’কে আরও আলোকিত করতে স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন দর্শক হিসেবে মাঠে আমন্ত্রণ জানায় ‘স্প্যানিশ ক্ল্যাসিকো’ বা ‘এল ক্ল্যাসিকোর’ দুই সুপারস্টার লিওনেল মেসি ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে। এর আগে সাউথ আমেরিকান ফুটবল কনফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট আলেজান্দ্রো ডোমিনগুয়েজ আগেই বলেছেন, ‘স্পেনের ফাইনালে দুই দলের দর্শকই মাঠে থাকতে পারবে।’

স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশনের ডাকে সাড়া দিয়েছেন মেসি। নিজ দেশের দুই ক্লাব হবে বোকা জুনিয়র্স এবং রিভার প্লেটের ফাইনাল দেখতে রিয়ালের মাঠ বার্ন্যবুতে উপস্থিত থাকবেন বলে নিশ্চিত করেছেন বার্সেলোনা বরপুত্র। তবে এই মহারণে আলোর ঝলকানি বাড়াতে রোনালদো উপস্থিত থাকবেন কিনা তা নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। এখনো হ্যাঁ বা না’র উত্তর না জানানোয় ধোঁয়াশার সৃষ্টি হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট বক্সে পাশাপাশি বসে খেলা দেখার জন্য মেসি-রোনালদোকে আমন্ত্রণ জানায় স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন। আর্জেন্টাইন সুপারক্ল্যাসিকো দেখতে এল এটা হবে রিয়াল ছেড়ে জুভেন্টাসে যাওয়ার পর রোনালদোর প্রথম বার্নাব্যু সফর। তবে সেটা হবে কিনা তা এখনো অজানা।

রোনালদোর না আসার একটা কারণ জানাচ্ছে স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক এএস। পর্তুগিজ তারকার এক ঘনিষ্ঠজনের সঙ্গে কথা বলে পত্রিকাটি জানায়, ক্লাব ছাড়ার ঘটনায় এখনো সম্পর্ক স্বাভাবিক হয়নি রিয়াল-রোনালদো। নাম না জানানো রোনালদোর ওই ঘনিষ্ঠ এএসকে বলেছেন, ‘ভিআইপি লাউঞ্জে মেসির পাশাপাশি বসে খেলা দেখার আমন্ত্রণ পেয়ে রোনালদো খুশি হতে পারে। তবে ক্লাব ছাড়ার সময় হওয়া সম্পর্কের ক্ষত এখনো পুরোপুরি সেরে উঠেনি।’

এরআগে স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন ঘোষণা করে, ‘ক্রিস্টিয়ানো এবং মেসির উপস্থিতি ফুটবলের জন্য একটি চমৎকার বার্তা হবে এবং এটি উভয় খেলোয়াড়কে এমন একটি জায়গায় তুলে দেবে যেখানে শুধু তারাই যোগ্য।’ শুধু স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশনই নয়, রিয়াল মাদ্রিদ প্রেসিডেন্ট ফ্লোরেনটিনো পেরেজও চান মেসি-রোনালদোর পাশে বসে এই ম্যাচ দেখতে। এ বিষয়ে সাউথ আমেরিকান ও স্প্যানিশ ফুটবল কনফেডারেশনের সঙ্গে আগেই একমত হন পেরেজ।

আর্জেন্টিনার দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব বোকা জুনিয়র্স এবং রিভারপ্লেটের এই ফাইনালটি হওয়ার কথা ছিল ২৪ নভেম্বর, রিভার প্লেটের মাঠে। কিন্তু দর্শকদের মারমুখী আচরণের কারণে ম্যাচটি সেদিন স্থগিত ঘোষণা করা হয়।

বোকা জুনিয়র্সের খেলোয়াড়দের বহন করা বাসে হামলা করে রিভার প্লেট সমর্থকরা। ওই বাসে থাকা বোকার খেলোয়াড়রা আহত হন। যার মধ্যে আছেন বোকার তারকা ফরোয়ার্ড কার্লোস তেভেজও। আর্জেন্টিনার পত্রিকাগুলো জানাচ্ছে, এই ঘটনায় এখনো পর্যন্ত ৩০ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

রিভার প্লেটের সমর্থকরা পিপার স্প্রে ছুঁড়ে মারে বোকার খেলোয়াড়দের চোখে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে স্থানীয় পুলিশ। তাৎক্ষণিকভাবে ম্যাচ এক ঘণ্টা পিছিয়ে দেয় কর্তৃপক্ষ। বোকার পক্ষ থেকে বলা হয়, তাদের পক্ষে খেলা সম্ভব নয়। পরে ম্যাচ একদিন পিছিয়ে দেয়া হয়। কিন্তু বোকার খেলোয়াড়রা সুস্থ না হওয়ায় ম্যাচটি অনির্ধারিত সময়ের জন্য পিছিয়ে যায়। বোকার মাঠে হওয়া ফাইনালের প্রথম লেগ ২-২ গোলে ড্র হয়। প্রবল বৃষ্টিতে মাঠে পানি জমে যাওয়ায় ওই ম্যাচও ২৪ ঘণ্টা পিছিয়ে দেয়া হয়েছিল।