খুলনা বিভাগ

পাস করলেও অনলাইনে ভর্তির আবেদন করতে পারছে না ৬৮ শিক্ষার্থী

নড়াইল সদর উপজেলার চালিতাতলা সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অকৃতকার্য সেই ৬৮ জন এসএসসি পরীক্ষার্থী পাস করলেও অনলাইনে কোনো কলেজে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারছে না। কারণ তাদের নামের পাশে অকৃতকার্য দেখানো হচ্ছে।

জানা গেছে, যশোর শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষ অভ্যন্তরীণ অনলাইনে তাদের ফলাফল প্রকাশ করলেও টেলিটক সিমের মাধ্যমে অনলাইনে তাদের পাসের ফলাফল প্রকাশ না করায় শিক্ষার্থীরা কোনো কলেজে ভর্তির আবেদন করতে পারছে না। এতে অভিভাবকসহ শিক্ষার্থীরা চরম বিপাকে পড়েছেন।

সম্মিলনী বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ধ্রুব কুমার ভদ্র জানান, বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা কেন্দ্র ছিল নড়াইল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মহিতোষ কুমার দে নিয়মানুযায়ী কেন্দ্রসচিব। চালিতাতলা সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ের (আইসিটি) পরীক্ষার ব্যবহারিক নম্বর কেন্দ্র সচিবের কাছে যথারীতি পাঠানো হয়। কিন্তু কেন্দ্রসচিব ওই বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের আইসিটি নম্বর যশোর শিক্ষা বোর্ডে না পাঠানোর কারণে সব পরীক্ষার্থীকে অকৃতকার্য ঘোষণা করা হয়।

বিষয়টি জেলা প্রশাসক আঞ্জুমান আরাকে জানানো হলে তিনি শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের সঙ্গে যোগাযোগ করেন এবং নম্বরগুলো বোর্ডে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। প্রধান শিক্ষক বলেন, অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬ জন, এ পেয়েছে ১৬ জন, এ-পেয়েছে ২৪ জন, বি পেয়েছে ১৩ জন এবং সি পেয়েছে ৯ জন।

অভিভাবক মো.আইউব হোসেন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, সমস্ত স্কুলের শিক্ষার্থীরা অনলাইনে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারছে। কিন্তু চালিতাতলা সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অনলাইনে ভর্তির আবেদন করতে পারছে না। তিনি বলেন, কেন্দ্র সচিবের দায়িত্বহীনতার কারণে ছেলেমেয়েরা একবার ধাক্কা খেয়েছে এখন আবার ভর্তি হতে না পারায় দিশেহারা হয়ে পড়েছে।

পরীক্ষার্থী তাঞ্জামুল ইসলাম এবং ফারজানা খানম বলেন, গত দুই দিন নড়াইলে এসে অনলাইনে ভর্তির আবেদন করতে পারিনি। আবেদন করলে রোল নম্বরের পাশে অকৃতকার্য দেখাচ্ছে।

যশোর শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র রুদ্র প্রথম আলোকে বলেন, শিক্ষা বোর্ডের অভ্যন্তরীণ অনলাইনে তাদের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। এখন বুয়েট কর্তৃপক্ষ এটি দেখভাল করবেন। আজ মঙ্গলবার তারা হয়তো ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির নীতিমালা অনুযায়ী, এবারও তিন ধাপে আবেদন নেওয়া হবে। প্রথম ধাপে আবেদন করা যাবে ২৩ মে পর্যন্ত। এই পর্যায়ে আবেদনকারীদের ফল প্রকাশ করা হবে ১০ জুন। দ্বিতীয় পর্যায়ে আবেদন করা যাবে ১৯ ও ২০ জুন। ২১ জুনই এদের আবেদনের ফল প্রকাশ করা হবে। তৃতীয় ধাপে আবেদন নেওয়া হবে ২৪ জুন। ফল প্রকাশ করা হবে ২৫ জুন। ২৭ থেকে ৩০ জুন শিক্ষার্থীদের নির্বাচিত কলেজে ভর্তি হতে হবে। ১ জুলাই শুরু হবে ক্লাস।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন, আজ মঙ্গলবারেও অনলাইনে আবেদনের চেষ্টা করে কোনো কলেজে ভর্তি হতে পারেনি তাঁর স্কুলের শিক্ষার্থীরা।