আর্ন্তজাতিক

পরীক্ষা নিয়ে ব্যস্ত স্বামী, পালিয়ে গেলেন স্ত্রী

ভারতের মধ্যপ্রদেশের একটি কোচিংয়ের মালিক তিনি। সম্প্রতি বিয়ে করেছেন। তবে কোচিংয়ে প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষা নিয়ে এতই ব্যস্ত যে স্ত্রীর সঙ্গে কথাও বলার সময় পান না। নববধূ এমন আচরণকে তার প্রতি অবজ্ঞা হিসেবে মনে করে স্বামীকে ছেড়ে চলে গেছেন।

ভারতীয় টেলিভিশন এনডিটিভি এক অনলাইন প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ওই স্ত্রীকে ডিস্ট্রিক্ট লিগ্যাল সার্ভিস অথরিটির (ডিএলএসএ) মাধ্যমে কাউন্সেলিং করানো হচ্ছে। তিনি অভিযোগ করেছেন, বিভিন্ন পরীক্ষা নিয়ে ব্যস্ত স্বামীর কাছে নিয়মিত অবজ্ঞার শিকার হতে হচ্ছিল তাকে।

ডিএলএসএ কাউন্সেলর নূরুন্নেসা খান বলেন, ‘ওই নারী জানিয়েছেন, তার স্বামী বিভিন্ন প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষা নিয়ে সবসময় ব্যস্ত থাকতেন। সহবাসের সময়ও তার স্বামী উদাসীন থাকতেন। তাছাড়া পরীক্ষার বিভিন্ন বিষয়ে কথা তোলেন বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।’

কাউন্সেলর খান আরও বলেন, ‘ওই নারীর স্বামী একজন পিএইডি ডিগ্রিধারী এবং পরিবারের একমাত্র ছেলে সন্তান। তার বিয়ে করার কথা ছিল না। কিন্তু বাবা-মা হঠাৎ অসুস্থ হওয়ায় বিয়ে করতে বাধ্য হন তিনি। তারপর থেকেই তাদের মধ্যে ঝামেলা শুরু হয়। তাকেও কাউন্সেলিং করানো হচ্ছে।’

স্বামীর এমন আচরণ সহ্য করতে না পেরে স্ত্রী বাবার বাড়িতে চলে যান। পরে দুই পরিবারের আত্মীয়ের মাধ্যমে তাকে ফেরানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন। নিজের কাছে ফেরাতে না পেরে তার স্বামী আদালতে বিচ্ছেদের আবেদন জানিয়েছেন।

ডিএলএসএ কাউন্সেলর নূরুন্নেসা খান, ‘পারিবারিক আদালত থেকেই ওই স্বামী-স্ত্রীকে কাউন্সেলিং করানোর নির্দেশ দেয়া হয়। উভয় পক্ষের সঙ্গে আর চার দফায় কাউন্সেলিং সম্পন্ন হবে। তারপর আদালতে বিবাহ বিচ্ছেদের শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। বিয়ে টেকানোর জন্য আমরা আমাদের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।’