আর্ন্তজাতিক

পদত্যাগের জন্য ইমরান খানকে ২ দিনের আল্টিমেটাম

ইমরান খানের পদত্যাগ চেয়ে পুনরায় নির্বাচন দাবিতে জমিয়ত উলামা-ই-ইসলাম পার্টির প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমানের নেতৃত্বে আন্দোলনে নেমেছে পাকিস্তানের বিরোধী দলগুলো। গতকাল শুক্রবার (২ নভেম্বর) জমিয়ত উলামা-ই-ইসলামের দীর্ঘ এক পদযাত্রা শেষে বিপুল আন্দোলনকারী রাজধানী ইসলামাবাদে পৌঁছায় আন্দোলনকারীরা। গত রোববার (২৭ নভেম্বর) মাওলানা ফজলুর রহমানের নেতৃত্বে করাচি থেকে ইসলামাবাদের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে আন্দোলনকারীরা। প্রায় দুই হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে গতকাল শুক্রবার ভোরে তাঁরা ইসলামাবাদে পৌঁছে অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেন।

আন্দোলনকারীদের দাবি, ইমরান খানকে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়াতে হবে। নয়তো হাজার হাজার মানুষের এ বিক্ষোভ অব্যাহত থাকবে। তবে বড় দুই বিরোধী দল পিএমএল-এন ও পিপিপি অনির্দিষ্টকালের অবস্থান কর্মসূচিতে থাকবে না বলে আলাদাভাবে জানিয়েছে। আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী নেতা মাওলানা ফজলুর রহমান বলেন, ‘আমরা অবৈধ সরকারের পতন চাই। আর সেজন্যই লং মার্চ করে ইসলামাবাদে আসা। সরকার কোনো প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে পারেনি। গরিবদের জন্য ৫০ লাখ বাড়ি বানানোর কথা বলেছিল এই সরকার, কিন্তু তা না করে উল্টো ৫০ লাখ ঘরবাড়ি ধংস করা হয়েছে।’ আন্দোলনে সমর্থন দেওয়া সরকারবিরোধী দলগুলো বলছে, গত বছর পাকিস্তানে হওয়া নির্বাচনে সেনাবাহিনী অবৈধ হস্তক্ষেপ করেছে। আর কারচুপি করেই নিজেদের পছন্দের পাত্র ইমরান খানকে প্রধানমন্ত্রী বানিয়েছেন সেনা কর্মকর্তারা। এদিকে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আলোচনার কোনো প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী আনোয়ার পারভেজ খাত্তাক।