খুলনা বিভাগ

নড়াইলের বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ কলেজ আজও এমপিওভূক্ত হয়নি!

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি: নড়াইলের বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ সম্মানে ২০০৮ সালে নড়াইলের ‘মহিষখোলা’র নাম পরিবর্তন করে ‘নূর মোহাম্মদ নগর’ করা হয়। সে থেকে উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে নূর মোহাম্মদ নগরে। এলাকায় প্রতিটি ঘরে পৌছেছে বিদ্যুৎ। গ্রামের সড়কগুলো সংস্কার করা হয়েছে। নূর মোহাম্মদের স্মৃতিরক্ষার্থে নির্মিত হয়েছে গ্রন্থাগার, জাদুঘর, স্মৃতিস্তম্ভ ও ক্লাব। প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং কলেজ। এখানে লেখাপড়ার সুযোগ পেয়ে গর্বিত শিক্ষার্থীরা। তবে বিদ্যালয়টি এমপিওভূক্ত হলেও কলেজটি এখনো এমপিওভূক্ত হয়নি। এদিকে, বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ গ্রন্থাগার ও স্মৃতি জাদুঘরে বিভিন্ন ধরণের বই-পুস্তক থাকলেও তার ব্যবহৃত জিনিসপত্রসহ কোনো স্মৃতিই রাখা হয়নি সেখানে। বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদের আত্মীয় মো. মশিয়ার রহমান বলেন, বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ ল্যান্স নায়েক নূর মোহাম্মদ শেখ গ্রন্থাগার ও স্মৃতি জাদুঘরে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের বই-পুস্তক ও পত্রিকা। জ্ঞান অর্জনের ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা পালন করছে লাইব্রেরিটি। এদিকে, নূর মোহাম্মদের বসতভিটায় স্মৃতিস্তম্ভের পাশে একটি বিশ্রামাগার নির্মাণের দাবি করেছেন নূর মোহাম্মদের স্ত্রী বেগম ফজিলাতুন নেসাসহ এলাকাবাসী। ডিসি আনজুমান আরা বেগম জানান, বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদের স্মৃতি রক্ষার্থে এলাকাটিতে ব্যাপক উন্নয়ন করা হয়েছে আগামীতে আরো উন্নয়নের পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। কলেজটি জাতীয়করণের জন্য চেষ্টা করা হচ্ছে।