নির্বাচন

নির্বাচনের প্রচারে ভোটারদের বাড়িতেই খাবার সারছেন হিরো আলম

কৌশলী প্রচার চালাচ্ছেন বগুড়া-৪ (নন্দীগ্রাম-কাহালু) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী হিরো আলম। রাতদিন চষে বেড়াচ্ছেন ভোটের মাঠ।

যেখানে যাচ্ছেন সেখানেই কৌতূহলী মানুষের ভিড়। কেউ মজা করছেন, কেউ হাত মেলাচ্ছেন-এসবে মজা পাচ্ছেন হিরো আলমও।

হিরো আলম আগেই বলে রেখেছিলেন, তার টাকা নেই। নির্বাচনে খরচ করতে পারবেন না। মানুষের ভালোবাসাই তার পুঁজি। এই পুঁজি নিয়েই ভোটের মাঠে থাকবেন।

যেই কথা সেই কাজ। ভোটের প্রচারে হিরো আলমের খুব একটা খরচ চোখে পড়েনি। বরং তিনি যেখানে যাচ্ছেন, সেখানকার লোকজনই তাকে খাবার খাওয়াচ্ছেন।

ভোটারদের বাড়িতেই সারছেন দুপুর ও রাতের খাবার। দুপুরে যে বাড়িতে যান সেই বাড়ির লোকজন তাকে সাধলেই কোনো আপত্তি না করে বসে পড়ছেন খাবার খেতে।

মাটিতে মাদুর বিছিয়ে কিংবা পিঁড়িতে বসেই খাবার খেয়ে নিচ্ছেন হিরো আলম। গতকাল রাতে নন্দীগ্রাম উপজেলার হাটকড়ই এলাকার হিন্দু সম্প্রদায়ের এক বিধবাকে মা ডেকে সেখানেই রাতের খাবার খান হিরো আলম।

সিংহ প্রতীকের এ প্রার্থী যেখানেই প্রচারে যাচ্ছেন, সেখানে একই কথা বলছেন- ‘আমি গরিব ঘরের ছেলে। টাকা দিয়ে ভোট করতে আসিনি। আমি গরিব, গরিবরাই আমার সঙ্গে প্রচারে রয়েছে। কেউ টাকার জন্য আমার প্রচার করছেন না, ভালোবাসা থেকেই সহযোগিতা করছেন সবাই। গরিবের দুঃখ পরিবারই বোঝে।’

এই আসনে হিরো আলমের প্রতিদ্বন্দ্বী মহাজোটের একেএম রেজাউল করিম তানসেন (নৌকা), বিএনপির মোশারফ হোসেন (ধানের শীষ), ইসলামী আন্দোলনের মোহাম্মদ ইদ্রিস আলী (হাতপাখা) প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, ইউটিউবে বিচিত্র অভিনয়, গান আর নাচ দেখিয়ে দেশব্যাপী আলোচনায় আসেন হিরো আলম। তার প্রকৃত নাম আশরাফুল আলম। তিনি এর আগেও স্থানীয় নির্বাচনে অংশ নেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ আলোচিত এই ‘হিরো’।