বিশেষ প্রতিবেদন

নকল কসমেটিকস: চীন থেকে আনা হয় খালি কৌটা, চকবাজারে ভরা হয় কেমিক্যাল

রাজধানীর চকবাজারে অভিযান চালিয়ে নকল কসমেটিকস তৈরির কারখানা ও গুদাম সিলগালা করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এ ঘটনায় ছয় জনকে দুই বছর করে কারাদণ্ড, ২৩ লাখ টাকা জরিমানা এবং ৯টি দোকান ও গোডাউন সিলগালা করে দিয়েছে  র‌্যাব। শনিবার দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

র‌্যাব থেকে জানানো হয়,  চকবাজারের পাইকারি বাজারের একসঙ্গে বেশি বিক্রির সুযোগে ছোট ছোট ঘর ভাড়া নিয়ে সেখানে ভেজাল কসমেটিকস তৈরির কারখানা গড়ে তুলেছে ব্যবসায়ীরা। এখানে নামি-দামি সব ব্র্যান্ডের নকল পণ্য তৈরি হয়। মূলত চীন থেকে যেকোনো ব্রান্ডের খালি কৌটা আমদানি করে ঢাকায় কেমিক্যাল ভরা হয়।

তারপর এগুলো বাজারে ডোভ, লেকমি, পন্ডস, ফেয়ার অ্যান্ড লাভলিসহ বিভিন্ন ব্রান্ডের নামে বাজারজাত করা হয়।

এছাড়াও অসাধু ব্যবসায়ীরা বিদেশি কোম্পানির তৈরিকৃত সাবান, লোসন, লিপস্টিক, নেইলপলিশ, বডিস্প্রে, পার্টি স্প্রে, পাউডার ও ফেইস ওয়াশ বিএসটিআই এর নকল সিল ও কোম্পানির মোড়ক নকল করে ব্যবহার করেছে। তেল থেকে শুরু করে রং উজ্জ্বল করার ক্রিম সবই এখানে নকল করা হয়। প্রতিদিন ব্যবহারের প্রায় ৩০টি প্রসাধনী সামগ্রী নকল হয় চকবাজারে।

র‌্যাব-১০ এর (সিপিসি-৩) কোম্পানি কমান্ডার মেজর আনিসউজ্জামানের নেতৃত্বে একটি দলের সহযোগিতায় শনিবার দুপুর থেকে দিনব্যাপী অভিযানে পরিচালনা করেন র‌্যাব সদর দপ্তরের  নির্বাহী মাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম।

তিনি জানান, অভিযানের সময় ১৫টি কসমেটিকস পণ্য বিক্রয়কারী দোকানে ক্ষতিকারক কেমিক্যাল দ্বারা তৈরি নানান ধরনের প্রসাধনী পাওয়া গেছে।এদিকে মোহাম্মদপুর ও মিরপুরে ২১টি প্রতিষ্ঠানকে চার লাখ টাকা জরিমানা করে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

এছাড়া রাজধানীর মোহাম্মদ কৃষি মার্কেট ও মিরপুর-সহ চারটি বাজারে অভিযান চালায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।