খেলাধুলা

‘দ্য হান্ড্রেডে’ দল পাননি বাংলাদেশের কোনো ক্রিকেটার

জমকালো অনুষ্ঠানে ইংল্যান্ডের স্কাই স্টুডিওতে রোববার হয়ে গেল ‘দ্য হান্ড্রেড’-এর প্রথম ড্রাফট। এতে ১১ বাংলাদেশি ক্রিকেটার ছিলেন। তবে কেউই দল পাননি। বিক্রি হননি ক্রিস গেইলের মতো তারকা ক্রিকেটারও।

আগামী বছরের ইংলিশ গ্রীষ্মে শুরু হবে এ টুর্নামেন্ট। এতে অংশগ্রহণ করবে ইংল্যান্ডের ৮টি শহরের দল। ২০২০ সালের ১৭ জুলাই থেকে ১৬ আগস্ট পর্যন্ত চলবে ব্যাট-বলের যুদ্ধ।

টুর্নামেন্ট হবে রাউন্ড রবিন পদ্ধতিতে। লিগ ম্যাচ হবে ৩২টি। হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ভিত্তিতে প্রতিটি দল একে অপরের মুখোমুখি হবে।

প্রতিটি দল তিনজন করে বিদেশি ক্রিকেটার রাখার সুযোগ পাবে। সেই তালিকায় ঠাঁই পাননি সাকিব আল হাসান, লাসিথ মালিঙ্গা, কাগিসো রাবাদা, বাবর আজমের মতো ক্রিকেটাররা।

ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস বোর্ডের (ইসিবি) তত্ত্বাবধানে হবে এ টুর্নামেন্ট। ইভেন্ট কমিটি জানিয়েছে, ড্রাফট থেকে নির্বাচিত হয়েছেন ৯৬ ক্রিকেটার। প্রথম দল পান রশিদ খান। সবার শেষে লুক রাইট। আর অবিক্রীত থেকে গেছেন ৪৭৪ জন।

চূড়ান্ত ড্রাফটে নাম ছিল ১১ বাংলাদেশির। টাইগার ক্রিকেটারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ১ লাখ পাউন্ড ভিত্তিমূল্য ছিল সাকিব ও তামিম ইকবালের।

আরেক ক্যাটাগরিতে ছিলেন মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও মোস্তাফিজুর রহমান। পরে তাতে যোগ দেন লিটন কুমার দাস, ইমরুল কায়েস, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আবু হায়দার রনি ও তাসকিন আহমেদ।

কোনো বাংলাদেশি ক্রিকেটার দল না পেলেও ঠিকই পেয়েছেন নেপালের ‘শেন ওয়ার্ন’খ্যাত সন্দীপ লামিচানে। ১ লাখ পাউন্ডে তাকে টেনেছে ওভাল ইনভিনজিবলেস।

অবশ্য দল পাওয়ার আরেকটি শেষ সুযোগ থাকছে অবিক্রীত ক্রিকেটারদের। আসছে গ্রীষ্মে ‘ওয়াইল্ডকার্ড’ নিয়মে প্রতিটি দল খেলোয়াড় নেয়ার সুযোগ পাবে। ফলে সাকিব-মোস্তাফিজদের ভাগ্য খুললেও খুলতে পারে।