অর্থনীতি

দেশের ৫৯তম ব্যাংক কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ

দেশের ৫৯তম ব্যাংক হিসেবে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে, ‘কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ’। পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্ট্রের অধীনে ব্যাংকটিকে বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরুর চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে, বাংলাদেশ ব্যাংক। সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংক পরিচালনা পর্ষদের সভায় এ অনুমোদন দেয়া হয়। এছাড়া, অনুমোদনের অপেক্ষায় থাকা অন্য তিন ব্যাংকের বিষয়ে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলেও জানিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। যদিও, নির্বাচনের আগে নতুন ব্যাংকের অনুমোদন দেয়ার সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছেন অর্থনীতিবিদরা।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের প্রথম মেয়াদে, ২০১২ সালে ছয়টি বাণিজ্যিক ব্যাংকের অনুমোদন দেয়া হয়। কার্যক্রম শুরুর পর থেকেই প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ছাড়া ঋণ অনুমোদন’সহ নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে এসব ব্যাংকের বিরুদ্ধে।

এ অবস্থায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগমূহুর্তে নতুন আরো একটি ব্যাংকের অনুমোদন দিলো বাংলাদেশ ব্যাংক। সোমবার পরিচালনা পর্ষদের সভায় অনুমোদন পাওয়া নতুন ব্যাংকটির নাম, কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ যার মালিকানা বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের। তবে, বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক, পিপলস ব্যাংক ও সিটিজেন ব্যাংককে চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য অপেক্ষায় রেখেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, স্বাধীনতার পর সবচেয়ে সংকটময় পরিস্থিতি পার করছে ব্যাংকিং খাত। এ অবস্থায় নতুন ব্যাংকের অনুমোদন দেয়ার পেছনে রাজনৈতিক স্বার্থ থাকতে পারে বলেও মনে করছেন তারা।

যদিও, বাংলাদেশ ব্যাংকের দাবি, রাজনৈতিক নয়, বরং দেশের বেশিরভাগ মানুষকে ব্যাংকিং সেবার আওতায় আনার লক্ষ্যেই অনুমোদন দেয়া হয়েছে নতুন ব্যাংকের।