খেলাধুলা

তিন লাল কার্ডের ফাইনালে শিরোপা ভারতের

আবারো ভারতের কাছে হেরে স্বপ্ন ভঙ্গহলো বাংলাদেশের। উত্তেজনায় ঠাসা প্রথমার্ধ শেষ হয়েছিল ১-১ সমতায়। তিন লাল কার্ডের ম্যাচে অন্তিত মুহুর্তে গোল করে ভারতকে শিরোপা পাইয়ে দেন রানা বাহাদুর। নেপালের কাঠমান্ডুর হালচুক স্টেডিয়ামে রোববার ভারতের কাছে ২-১ গোলে হারে বাংলাদেশ। গতবারের মতো এবারও রানার্সআপ হলো দল।
এদিন ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই পিছিয়ে পড়ে বাংলাদেশ। থৈবা সিংয়ের লম্বা করে বাড়ানো বলে গুরকিরাত সিংয়ের হেড পাস পেয়ে যান বিক্রম প্রতাপ সিং। ডি-বক্সে ঢুকে দুই ডিফেন্ডারকে ছিটকে দিয়ে কাছের পোস্ট দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন এই মিডফিল্ডার।
২১তম মিনিটে একটি ফাউলকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের খেলোয়াড়রা হাতাহাতি, ধাক্কাধাক্কিতে জড়িয়ে পড়ে। রেফারি ভারতের গুরকিরাত সিংকে সরাসরি লালকার্ড দেখান। দ্বিতীয় হলুদ কার্ড পেয়ে মাঠ ছাড়েন বাংলাদেশের মিডফিল্ডার মোহাম্মদ হৃদয়।
৪০তম মিনিটে বাংলাদেশকে ম্যাচে ফেরান ইয়াছিন আরাফাত। ফয়সাল আহমেদ ফাহিমের কর্নারে আমির বাকিম বাপ্পী ব্যকহিলের পর দুরের পোস্টে থাকা ইয়াসিন মাপা শটে জাল খুঁজে নেন। গোল উদযাপন করতে গিয়ে জার্সি দিয়ে মুখ ঢেকে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ইয়াসিন। বাংলাদেশ পরিণত হয় নয় জনের দলে।
ম্যাচের একেবারে শেষ সময় স্বপ্ন শেষ হয়ে যায় বাংলাদেশের। থ্রো ইনের পর বল নিয়ে একটু এগিয়ে ডি-বক্সের বাইরে থেকে রবি রানার শট লাফিয়ে ওঠা গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে জালে জড়ালে এগিয়ে যায় ভারত। প্রথমবারের মতো বয়সভিত্তিক এই আসরের শিরোপা স্বাদও পায় তারা।
বয়সভিত্তিক এই প্রতিযোগিতার দুই দলের মুখোমুখিতে এগিয়ে গেলো বাংলাদেশ। আগের তিন ম্যাচে ২০১৫ সালে সেমি-ফাইনালে টাইব্রেকারে জিতেছিল ভারত। ২০১৭ সালে রানার্সআপ হওয়ার পথে ভারতকে ৪-৩ গোলে হারিয়ে ছিল বাংলাদেশ। এবার গ্রুপ পর্বে ড্র হয়েছিল দুই দলের ম্যাচ।