আজকের সেরা সংবাদ

টর্চলাইট দিয়ে খুঁজেও জামায়াতে মুক্তিযোদ্ধা মিলবে না: অর্থমন্ত্রী

জামায়াত দেশের শত্রু, তাদের দলে কোন মুক্তিযোদ্ধা নেই। দলটিতে দু’একজন মুক্তিযোদ্ধা থাকলেও অন্ধকারে টর্চলাইট দিয়ে খুঁজেও তাদের পাওয়া যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

শুক্রবার নগরীর টিলাগড় জামে মসজিদে জুম্মার নামাজ আদায় শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

গত বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সভাপতি নজরুল ইসলাম খান বলেছিলেন, ‘কেউ যুদ্ধাপরাধ না করলে তার হাতে ধানের শীষ প্রতীক তুলে দিতে সমস্যা কী? জামায়াতে অনেক মুক্তিযোদ্ধা আছে।’

এদিকে, গত বৃহস্পতিবার সকালে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সিলেট-১ আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ইনাম আহমদ চৌধুরী বাসায় গিয়ে সাক্ষাৎ করা প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ইনাম চৌধুরীর সাথে আমাদের তিন প্রজন্মের পারিবারিক সম্পর্ক। ইনামের বাবা চাকুরি শুরু করেন আমার দাদার সাথে। ইনামের বড় ভাই ফারুক চৌধুরী আমার ঘনিষ্ট বন্ধু। ইনামের সাথে সম্পর্ক এতো সহজে কাটবে না। চিরদিনই থাকবে। নির্বাচনে করছে আরেক দলে, তো কি হয়েছে?

সাক্ষাৎকালে ইনাম চৌধুরীর সাথে রাজনৈতিক কোন আলাপ হয়েছে কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ভদ্রভাবে সে অভিযোগ করেছে তার নেতাকর্মীদের পুলিশ হয়রানি করছে। আমি বলেছি, পুলিশের একটি ব্ল্যাক লিস্ট থাকে। সেটা অনুযায়ী তারা অভিযান চালায়, গ্রেফতার করে। এই ব্ল্যাক লিস্ট রাজনৈতিক বিবেচনায় হয় না। তবে মাঝে মধ্যে ভুল হতে পারে।

ইনামের সৌজন্য সাক্ষাৎ বিএনপির অনেকে নেতিবাচকভাবে দেখছে এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, যারা সমালোচনা করছে তাদের মন ছোট। কিন্তু ইনামের মন এতো ছোট নয়।

এসময় অর্থমন্ত্রীর সাথে ছিলেন তার ছোট ভাই সিলেট-১ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ড. এ কে আবদুল মোমেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আহমদ আল কবীর, মহানগর আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ও সিটি কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ প্রমুখ।