রাজনীতি

জয়-পরাজয় হবেই, আপনি আমার আপা আপাই থাকবেন

নাটোরে নির্বাচনী প্রচারণা কালে বিএনপি ও আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কুশল বিনিময়ে এক সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশের অবতারণা করে নাটোর-২ (নাটোর সদর ও নলডাঙ্গা উপজেলা) আসনের আওয়ামী লীগ ও বিএনপি প্রার্থী। দুই প্রার্থীর এমন সৌহার্দ্যপূর্ণ আচরণ নির্বাচনের শেষ দিন পর্যন্ত অব্যাহত রাখার আশ্বাস দেন উভয়েই। এ সময় নির্বাচনী কর্মকাণ্ডে কোনো ধরনের বাধা বা অসহযোগীতার পরিবেশ তৈরি হবে না বলে ধানের শীষের প্রার্থী সাবিনা ইয়াসমিন ছবিকে আশ্বাস দেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী শফিকুল ইসলাম শিমুল।

দলীয় সূত্র জানায়, গত ৯ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে নাটোর-২ আসনের প্রার্থী কে হচ্ছেন তা নিয়ে ছিল সংশয়। বিএনপির দুইজন প্রার্থী কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগাঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর এবং তাঁর স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন ছবি দু’জনেই ধানের শীষের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দেন। কিন্তু রিটার্নিং অফিসার রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর আদালতের সাজা থাকায় মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেন।

পরে দুলুর হাইকোর্ট থেকে প্রার্থীতা ফেরৎ পেলেও ইসির পক্ষ থেকে আপিল করা হয়। আপিলে গত ১২ ডিসেম্বর তারিখে দুলুর প্রার্থীতা বাতিল ঘোষণা করা হয়। একই দিন দুলুর ঢাকার গুলশানের বাসভবন থেকে নাশকতার একটি মামলায় গ্রেপ্তার হন দুলু। ফলে বিএনপি নাটোর সদর আসেন আনুষ্ঠানিক প্রচারণায় ছিল না। এ অবস্থায় গত শুক্রবার নাটোরে আসেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সাবিনা ইয়াসমিন ছবি। তিনি শনিবার সকালে নাটোর শহরের নিচাবাজার এলাকায় প্রচারণা শুরু করেন। অপরদিকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও বর্তমান এমপি শফিকুল ইসলাম শিমুল একটি অনুষ্ঠান শেষে আলাইপুর এলাকা থেকে প্রচারণা শুরু করেন। পথে দুই প্রার্থী শহরের উত্তরা সুপার মার্কেটের সামনে মুখোমুখি সাক্ষাৎ হয়। এ সময় দুই প্রার্থী কুশল বিনিময় করেন। দুই প্রার্থীর কুশল বিনিময়ের দৃশ্য সবাইকে মুগ্ধ করে।

এ সময় শফিকুল ইসলাম শিমিল বিএনপি প্রার্থী সাবিনা ইয়াসমিন ছবিকে বড় আপা সম্বোধন করে নির্বাচনী অবাধ প্রচারণায় আশ্বস্ত করেন। তিনি বলেন, নির্বাচনে জয় পরাজয় জনগণের ভোটে নির্ধারিত হবে। কিন্তু আপনি আমার আপা আপাই থাকবেন। ছবিও শিমুলকে ছোটভাই সম্বোধন করে এটাকে সাদরে গ্রহণ করে নির্বাচনের শেষ দিন পর্যন্ত এমন পরিবেশ প্রত্যাশা করেন। পরে দুই প্রার্থী তাদের সমর্থকদের নিয়ে প্রচারণা সহকারে এলাকা ত্যাগ করেন।