আর্ন্তজাতিক

‘কাশ্মীরের ১৪২ শিশু-কিশোর মুক্তি পেয়েছে’

সম্প্রতি ভারতের জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বিলোপ করা হয়। জম্মু-কাশ্মীর হাইকোর্টের একটি কমিটি জানিয়েছে, কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বিলোপ করার পর মোট ১৪৪ জন শিশু-কিশোরকে আটক করা হয়েছিল। এদের মধ্যে ১৪২ জনকেই পরে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

শীর্ষ আদালতে এক রিপোর্টে আজ এ কথা জানিয়েছে তারা।

সুপ্রিম কোর্টে পেশ করা এক আর্জিতে দুই শিশু অধিকার কর্মী জানান, জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা লোপের পরে সেখানে বহু শিশু-কিশোরকে বেআইনিভাবে আটক করা হয়েছে। তার প্রেক্ষিতেই জম্মু-কাশ্মীর হাইকোর্টের ‘নাবালক বিচার কমিটি’কে তদন্ত করার নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

আজ এক রিপোর্টে কমিটি জানিয়েছে, বিশেষ মর্যাদা লোপের পর থেকে ১৪৪ জন শিশু-কিশোরকে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৪২ জনকে পরে ছেড়ে দেওয়া হয়। জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের ডিজি ও নিম্ন আদালতের কাছ থেকে এ বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করেছে কমিটি।

জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের ডিজি জানান, আর্জিতে পেশ করা তথ্য মনগড়া। যেসব শিশু-কিশোর আইন ভেঙেছে তাদের বিরুদ্ধে আইন মেনেই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

ওই কমিটি রিপোর্টে জানিয়েছে, শ্রীনগরের হারওয়ান ও জম্মুর আর এস পোরায় নাবালকদের জন্য দুটি হোম রয়েছে। ৫ আগস্ট থেকে ২৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত হারওয়ানের হোমে মোট ৩৬ জন নাবালককে আনা হয়েছিল। এদের মধ্যে ২১ জন জামিন পেয়েছে। আর এস পোরার হোমে ওই সময়কালে আনা হয়েছিল ১০ জনকে। এর মধ্যে ৬ জন জামিন পেয়েছে।

সূত্র : আনন্দবাজার